কাস্টমস এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেট,সিলেট এর উদ্যোগে সিলেটে ভ্রাম্যমান রেজিস্ট্রেশন হেল্প ডেস্ক’র উদ্বোধন

প্রকাশিত: ৫:৫৯ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১২, ২০১৯

ডায়ালসিলেট ডেস্ক :: কাস্টমস এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেট,সিলেট এর উদ্যোগে ভ্রাম্যমান অনলাইন রেজিস্ট্রেশন হেল্প ডেস্ক আনুষ্টানিকভাবে ফিতা কেটে এর শুভ উদ্বোধন করা হয়।

আজ (মঙ্গলবার) দুপুরে নগরীর মেন্দিবাগস্থ কাস্টমস কার্যালয় আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি সিলেট চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি সভাপতি এটি এ শোয়েব ।

এতে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কাস্টমস এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেট সিলেট,এর কমিশনার গোলাম মো.মুনীর।
অতিরিক্ত কমিশনার সফিউর রহমান, যুগ্ম কমিশনার মো.মিনহাজ উদ্দিন,উপ-কমিশনার মুহম্মদ ছৈয়দুল আলম,আবাগারী ও ভ্যাট বিভাগ বিভাগীয় কর্মকর্তা আহমেদুর রেজা চৌধুরী, সিলেট চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্টি সিনিয়র সহ-সভাপতি পদে চন্দন সাহা, মো. এমদাদ হোসেন, ফালাহ উদ্দিন আলী আহমদসহ চেম্বারনেতৃবৃন্দরা উপস্থিত ছিলেন।

 

 

 

এসময় সিলেট চেম্বার সভাপতি এটিএম শোয়েব আহমদ বলেন, সিলেটে যারা ভ্যাট দেন এবং আমরা চাই ভ্যাটের পরিধি বাড়ানো প্রয়োজন। তাহলেই ভ্যাটের কালেকশনটা আরো বেশী হবে এবং এর পরিধি বাড়ানো জন্য সরকার পক্ষ থেকে ভ্যাট নিবন্ধন করার জন্য ব্যবসায়ীদেরকে উৎসাহিত করার জন্য আজকের এই আয়োজন।

আমাদের অনেকে নতুন নতুন ব্যবসায়ীরা যারা আছে তাদের মনে অনেক সময় ভীতি কাজ করে তাই এই ভীতি যেন কাজ না করে সবাই যেন ভ্যাট এবং টেক্স এর সাথে সম্পৃক্ত হয়। আমাদের দেশ উন্নতি করতে হলে ভ্যাটের কোন বিকল্প নেই, রাজস্ব আদায় করতে হবে কিন্তুু সহনীয় মাত্রায় আমাদের ব্যবসায়ীরা যেন এতে ক্ষতিগ্রস্থ না হয় এবং কাস্টমস এক্সাইজ ও ভ্রাট কমিশনারেট সিলেট কমিশনারকে ধন্যবাদ জানাই এধরনের উদ্যোগ গ্রহনের জন্য।

এসময় কাস্টমস এক্সাইজ ও ভ্রাট কমিশনারেট সিলেট কমিশনার গোলাম মো.মুনীর বলেন, বর্তমানে আমরা মোবাইল ভ্রাম্যমান রেজিস্ট্রেশন হেল্প ডেস্ক করা হয়েছে তা ব্যবসায়ী নিরাপদে ও সহজে ভ্যাট প্রদান করতে পারবে। আমরা আজকে থেকে সিলেট বিভাগে রেজিস্ট্রেশন অনলাইনে মোবাইল হেল্প ডেস্ক চালু করেছি।দুটি গাড়ি মাধ্যমে বাজারের বিভিন্ন জায়গায় মাইকিং করবে এবং গাড়ির কাছেই আসলে ব্যবসায়ীরা অনলাইন রেজিষ্ট্রেশন করতে পারবে তো মূল উদ্দেশ্য একটাই কোস্ট অব ডোয়িং বিজনেস কমানো,হয়রানি কমানোর মাধ্যমে এবং হিউম্যান এন্টাফেসটাকে এবোয়েড করার মাধ্যমে যতটা পারা যায় এটাই হচ্ছে বিএটি অনলাইন আমাদের যে প্রকল্প সেই প্রকল্পের মূল কথা এবং এটিই হচ্ছে সরকার ফেসিটিলিটে করছে ট্রেইড এবং বিজনেসকে এই ফেসিটিলিটিশনের একটি মাধ্যম এ অনলাইনে চলে যাওয়া যত দ্রুত সম্ভব আমাদের সেবার কমিটমেন্ট থাকতে হবে এবং অনারশীপও থাকতে হবে। ট্রেনিং এবং বিজনেস কমিউনিটি অনারশীপটা আমরা পাই তাহলে এটা খুব দ্রুত বাস্তবায়ন করে ব্যবসায় যে খরচপাতি এটা কমিয়ে দেয়া সম্ভব।

উল্লেখ্য, মুল্য সংযোজন ও সম্পুরক মুল্ক আইন ২০১২ অনুযায়ী প্রত্যেক ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানকে ১৩ ডিজিটে অনলাইন রেজিস্ট্রেশন করার বাধ্যবাদকতা রয়েছে।
জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের নিদের্শনা অনুযায়ী আগামী ৩০ শে নভেম্বরের মধ্যে সকল ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানকে ১৩ ডিজিটের অনলাইন রেজিস্ট্রেশন করার জন্য আহবান জানানো হয়েছে।

উক্ত ভ্রাম্যমান অনলাইন রেজিস্ট্রেশন হেল্প ডেস্ক নগরীসহ সিলেট বিভাগে অপর জেলা হবিগঞ্জ, সুনামগঞ্জ,ও মৌলভীবাজারের গুরুত্বপুর্ণ বানিজ্যিক এলাকা সমুহ প্রদক্ষিন করে ব্যবসায়ীদের অনলাইনে নিবন্ধন গ্রহনে কাজ করবে।
ভ্রাম্যমান অনলাইন রেজিস্ট্রেশন হেল্প ডেস্ক গাড়ি ছাড়াও কাস্টমস এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেট সিলেটের উদ্যোগে আরো ৫ টি স্থায়ী হেল্প ডেস্ক করা হয়েছে।
১.কাস্টমস সদর দপ্তর মেন্দিবাগ সিলেট। ২.আবগারীও ভ্যাট বিভাগ উপশহর সিলেট। ৩. আবগারীও ভ্যাট বিভাগ সুনামগঞ্জ।৪. আবগারীও ভ্যাট বিভাগ হবিগঞ্জ। ৫. আবগারীও ভ্যাট বিভাগ মৌলভীবাজার এলাকায়।