ঢাবি ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় ধর্ষক মজনু আটক

প্রকাশিত: ২:৩৫ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ৮, ২০২০

ডায়ালসিলেট ডেস্ক :: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় সন্দেহভাজন ধর্ষক মজনুকে আটক করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশান ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। এর আগে ওই ছাত্রী ছবি দেখে মজনুকে শনাক্ত করেছে বলে জানা গেছে।

আজ রবিবার বেলা দেড়টার সময় রাজধানীর কারওয়ান বাজারে এ বিষয়ে র‌্যাবের ব্রিফিং অনুষ্ঠিত হয়। ব্রিফিংয়ে মাধ্যমে র‌্যাবের পক্ষ থেকে আটক করা মজনুর কাছ থেকে উদ্ধারকৃত বিভিন্ন আলামত উপস্থাপন করা হয়।

সূত্র জানিয়েছে, আটককৃত মজনু মূলত হকারের কাজ করত । তার বাড়ি নোয়াখালী জেলায়। সে গাজীপুরের টঙ্গী এলাকায় বসবাস করতো। বিমানবন্দর রেল স্টেশনের বগিতে থাকত সে। গ্রেপ্তারকৃত ব্যক্তির কাছ থেকে ছাত্রীর মোবাইল ফোনসহ মালামাল উদ্ধার করে র‌্যাব।

গত ৫ জানুয়ারি সন্ধ্যা সাতটার দিকে কুর্মিটোলা বাসস্ট্যান্ডে ঢাবির বাস থেকে নামার পর ওই ছাত্রীকে মুখ চেপে রাস্তার পাশে নিয়ে যায় অজ্ঞাত ব্যক্তি। সেখানে তাকে শারীরিক নির্যাতন ও ধর্ষণ করা হয়। তখন অজ্ঞান হয়ে যান ওই ছাত্রী। পরে জ্ঞান ফিরলে বান্ধবীর সাথে যোগাযোগ করে পুরো ঘটনা খুলে বলেন। বান্ধবী তাকে ক্যাম্পাসে এনে অন্য বন্ধুদের সহায়তায় ঢাকা মেডিকেলে নিয়ে যান। বর্তমানে তিনি সেখানে চিকিৎসাধীন আছেন।

ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করা আলামত, মামলার এজাহারে দেয়া বর্ননার পাশাপাশি ওয়ান স্টপ সার্ভিসে চিকিৎসাধীন নির্যাতিতা ছাত্রীর তথ্যের ভিত্তিতে সোমবার থেকেই এর তদন্তে নামে বিভিন্ন বাহিনী। সঙ্গে যোগ হওয়া ঘটনাস্থলের সিসি ক্যামেরা ফুটেজ মিলিয়ে করা অভিযানে মিললো একজন।

এদিকে, ঘটনা জানাজানি হওয়ার পরপরই আন্দোলন শুরু করে শিক্ষার্থী ও ছাত্র সংগঠনগুলো। হাসপাতালে ছুটে যান বিশ্ববিদ্যালয় ভিসি, প্রক্টর ও শিক্ষকরা। গত দুইদিন ধরে ঘটনার প্রতিবাদে নানা কর্মসূচি পালন করে শিক্ষার্থীরা।

 

0Shares