সিলেট কি পারবে করোনা মুক্ত হতে? এটাই কি সামাজিক দূরত্ব ?

প্রকাশিত: ৭:৪৬ অপরাহ্ণ, জুন ৪, ২০২০

সোহেল আহমদ পাপ্পু :: দিন যতই যাচ্ছে দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যাও বাড়ছে। আর এ সংখ্যা বাড়ার একমাত্র কারণ একে অন্যে  সংস্পর্শে  আসা।  সামনে কি হবে দেশের অবস্থা ? সিলেট কি পারবে করোনা মুক্ত হতে? এখানে কেউই মানছেন না সামাজিক দূরত্ব।বাজার হাটে গেলে মনে হয় সেখানে ঈদের বাজার এখনো চলছে। মানুষজন একে অন্যের ঘা ঘেষে বাজার করতে ব্যতিব্যস্ত। এতে ১জনের কারণে পরিবার পড়ছে বিপদের সম্মুখে।বাড়ছে আক্রান্তে সংঙ্কা।

এতিকে যে হারে বাড়তে শুরু করেছে আক্রান্ত রোগীদের সংখ্যা। এদিকে  রাস্তায় দেখা যায় অনেকের মুখে নেই কোন মাস্ক। তাদের মধ্যে নেই কোন আতঙ্ক। যা আগামী ১মাসের মধ্যে বাংলাদেশে ভয়াবহ পরিস্থিতির রূপ নিতে পারে। এতে দেশের মানুষ আক্রান্তে লাখো ছাড়িয়ে যেতে পারে এবং মৃতের সংখ্যা হাজারেরও বেশী।

আজ বৃহস্পতিবার পর্যন্ত দেশে করোনা ভাইরাস আক্রান্তে মোট সনাক্ত হয়েছেন ৫৭হাজার ৫৬৩ জন। এতে মোট মারা গেছেন ৭৮১ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১২ হাজার ১৬১ জন।

এদিকে করোনা আক্রান্তে মারা গেছেন চিকিৎসক,সাংবাদিক,পুলিশ,সরকারি কর্মকর্তা,পেশাজীবী মানুষসহ অনেকেই। তবু জনগনদের মাঝে নেই সতর্কতা এবং সামাজিক নিরাপত্তা। এ অবস্থায় চলতে থাকলে দেশের বড় ধরনের বিপর্যয়ের মুখে পড়তে হবে। তাই সরকারের পক্ষ থেকে শক্তভাবে প্রদক্ষেপ নিতে হবে। তাহলেই এ রোগ থেকে মানুষ আক্রান্ত থেকে কিছুটা হলেও রক্ষা পাবে।

এছাড়া সিলেট বিভাগের মধ্যে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যায় ১ম স্থানে রয়েছে সিলেট জেলার। এতে মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৬৭৯ জন এবং মারা গেছেন ২০জন। ২য় স্থানে আক্রান্তের মধ্যে রয়েছে সুনামগঞ্জ জেলায় সেখানে মোট আক্রান্ত রোগী ২১৯ জন এতে মারা গেছেন ১জন। এরপর হবিগঞ্জ জেলায় মোট আক্রান্ত ১৯৪জন এতে মারা গেছেন ১জন সর্বশেষ মৌলভীবাজার জেলায় মোট আক্রান্ত রোগী সংখ্যা ১৪৪জন এবং এতে মারা গেছেন ৪জন।

এদিকে সিলেট বিভাগজুড়ে চিকিৎসক, সাংবাদিক, পুলিশ সদস্য, বিশেষ বাহিনী, র‌্যাব, জনপ্রতিনিধি, ব্যাংকারসহ বিভিন্ন পেশার মানুষ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।সরকারের পক্ষ থেকে বিভিন্ন  সতর্কতামূলক বিধি নিষেধ মেনে চলার জন্য বলা হলেও তা পালন করছেন না অনেকে। দেশে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে লকডাউনের পাশাপাশি ১৪দিনের কারফিউ জারি করার দাবিও জানান সামাজিক চিন্তাবিদদের অনেকে।

0Shares