সিলেট থেকে ‘অপহরণ’, কুমিল্লায় উদ্ধার, স্বামী-স্ত্রী গ্রেফতার

প্রকাশিত: ২:২৯ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ৫, ২০২০

ডায়ালসিলেট ;:সিলেট থেকে ‘অপহৃত’ এক কিশোরকে কুমিল্লার লাকসাম থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। শুক্রবার ভোর রাতে লাকসাম থানা পুলিশের সহযোগিতায় ইয়াছিন আরাফাত মান্না (১৭) নামের ওই কিশোরকে উদ্ধার করে সিলেটের জালালাবাদ থানা পুলিশ। এ ঘটনায় দুজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সম্পর্কে তারা স্বামী-স্ত্রী।

ইয়াছিন আরাফাত মুন্না সিলেটের জৈন্তাপুর উপজেলার গৌরি শংকর গ্রামের তৈমুছ আলীর ছেলে। তার মোটরসাইকেল বেশি দামে বিক্রি করার প্রলোভন দেখিয়ে তাকে কুমিল্লা নিয়ে আটকে রাখা হয়। আটককৃতরা হলেণ- কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম থানার নবগ্রামের পেয়ার আহমদের ছেলে ইমরান হোসেন (২৭) ও তার স্ত্রী লাকি বেগম (২৪)। কাজের জন্য ইমরান সিলেটে থাকতেন।

পুলিশ জানিয়েছে, ইয়াছিন আরাফাত মুন্নার সিলেট-হ-১২-২৯৮০ নম্বরের একটি মোটরসাইকেল ছিল। পরিবারের কাউকে না জানিয়ে মোটরসাইকেল বিক্রি করতে চায় সে। গত ২৬ নভেম্বর বেশি দামে মোটরসাইকেল বিক্রির প্রলোভন দেখিয়ে মুন্নাকে ‘অপহরণ করে’ কুমিল্লায় নিয়ে যান ইমরান হোসেন। সেখানে তার মোটরসাইকেল ১২ হাজার টাকায় বিক্রি করে দেন ইমরান। এতে ক্ষুব্ধ হয় মুন্না। সে নিজের মোটরসাইকেল বিক্রির টাকা চাইলে ইমরান তার স্ত্রী লাকিকে সাথে নিয়ে লাকসাম বাজারের পশ্চিমে একটি দোতলা ভবনের কক্ষে তাকে আটকে রাখেন। পরে আরো টাকা দাবি করেন তারা।

সিলেট নগরীর জালালাবাদ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) শাহিন মিয়া জানান, এ ঘটনায় মুন্নার বাবা থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। পুলিশ তথ্য-প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে মুন্নার অবস্থান শনাক্ত করে। পরে লাকসাম থানা পুলিশের সহযোগিতায় তাকে উদ্ধার ও দুজনকে গ্রেফতার করা হয়। শুক্রবার তাদেরকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

0Shares