সুইসাইড নোট লিখে ট্রেনে কাটা পড়লেন নারী

dial dial

sylhet

প্রকাশিত: ৯:৩৯ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২৬, ২০২০

ডায়ালসিলেট ডেস্ক::

হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলায় পারিবারিক কলহের জেরে সুইসাইড নোট লিখে ট্রেনের নিচে পড়ে আত্মহত্যা করেছেন মন্দিরা সাঁওতাল (২২) নামের এক নারী। তিনি উপজেলার সুরমা চা-বাগানের বলরাম হাজদার ১ম স্ত্রী ও দুই সন্তানের জননী বলে জানা গেছে। আজ শনিবার (২৬ ডিসেম্বর) বেলা ৩টার দিকে আখাউড়া-সিলেট রেলওয়ে সেকশনের তেলিয়াপাড়া রেলস্টেশনের ৫০ গজ উত্তরে এ ঘটনা ঘটেছে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, মন্দিরা দীর্ঘ সময় রেললাইনের পাশে বসে ছিলেন। চট্টগ্রাম থেকে সিলেটগামী পাহাড়িকা এক্সপ্রেস ট্রেনটি কাছাকাছি এলে তিনি দৌড়ে গিয়ে রেললাইনে শুয়ে পড়েন। এতে ট্রেনে কাটা পড়ে তার শরীর থেকে মাথা ও পা বিচ্ছিন্ন হয়ে চার টুকরো হয়ে যায়। খবর পেয়ে তেলিয়াপাড়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ইন্সপেক্টর গোলাম মোস্তফা ঘটনাস্থলে পরিদর্শন করেন এবং রেলওয়ে পুলিশের শ্রীমঙ্গল থানাকে অবগত করেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বলরাম হাজদা তার স্ত্রী মন্দিরা সাঁওতালকে রেখে আরেকটি মেয়েকে গোপনে বিয়ে করেন। এ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে পারিবারিক কলহ চলছিল। মন্দিরার সুইসাইড নোটে লেখা ছিল, ‘আমি প্রেগন্যান্ট। বলরাম আমাকে অস্বীকার করায় আমি আত্মহত্যা করেছি।’

তেলিয়াপাড়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক গোলাম মোস্তফা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনাটি শায়েস্তাগঞ্জ রেলওয়ে পুলিশকে জানানো হয়েছে। রেলওয়ে পুলিশ এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

শ্রীমঙ্গল রেলওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলমগীর হোসেন জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

0Shares