নবীগঞ্জে আওয়ামী লীগ বিএনপি পাল্টাপাল্টি

dial dial

sylhet

প্রকাশিত: ৯:১৮ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ১২, ২০২১

ডায়ালসিলেট ডেস্ক::নবীগঞ্জে ১৬ই জানুয়ারি অনুষ্ঠিতব্য পৌরসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত শহরের জনপদ। অনেকটা মুখোমুখি অবস্থায় আওয়ামী লীগ ও বিএনপি।  আওয়ামী লীগের সভায় পেট্রল বোমা হামলার অভিযোগে সাবেক এমপি আলহাজ্ব শেখ সুজাত মিয়া এবং বিএনপি মনোনীত প্রার্থী আলহাজ্ব ছাবির আহমদ চৌধুরীসহ ১৭ জনকে আসামি করে থানায় মামলা হয়েছে। মামলায় অজ্ঞাত রাখা হয়েছে ৫ শতাধিক। উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ফয়সল তালুকদার বাদী হয়ে এ মামলা করেন। এছাড়াও রোববার রাতে বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে আয়োজিত সভায় পেট্রল বোমা হামলার অভিযোগে পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন করে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি। সন্ধ্যায় ককটেল হামলার অভিযোগে দলের মনোনীত প্রার্থী আলহাজ্ব গোলাম রসুল রাহেল চৌধুরীর বাসায় সংবাদ সম্মেলন করে পৌর আওয়ামী লীগ। লিখিত বক্তব্য দেন পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নির্মুলেন্দু দাস রানা। এসময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক আলহাজ্ব ফজলুল হক চৌধুরী সেলিম, হবিগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগ ও জেলা পরিষদ সদস্য এডভোকেট সুলতান মাহমুদ, পৌর কেন্দ্রীয় যুবলীগের নির্বাহী সদস্য সাহেদ গাজী, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মুজাহিদ আলম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইফুল জাহান চৌধুরী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কাজী ওবায়দুল কাদের হেলালসহ আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, বিএনপি মনোনীত প্রার্থী ছাবির আহমদ চোধুরীর নির্দেশে কেন্দ্রীয় মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আলহাজ্ব গোলাম রসুল রাহেল চৌধুরীসহ কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দকে হত্যার উদ্দেশ্যে এই গুপ্ত হামলা চালানো হয়। এতে তিনজন নেতাকর্মী আহত হন। পুলিশ বোমা সাদৃশ্য বস্তু উদ্ধার করেছে। এনিয়ে জেলা ও কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের সঙ্গে যোগাযোগ করে দলীয় এবং আইনি পদক্ষেপ নেয়া হবে। ওদিকে, আওয়ামী লীগের সংবাদ সম্মেলনের পরপর বিএনপি দলীয় প্রার্থী আলহাজ্ব ছাবির আহমদ চোধুরী নির্বাচনী কার্যালয় গোল্ডেন প্লাজায় সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন। শহরের নতুন বাজার মোড়ে ককটেল বিস্ফারণের ঘটনায় বিএনপি ও  তার সমর্থকদের বিরুদ্ধে আওয়ামী লীগ আয়োজিত  সংবাদ সম্মলনে দেয়া বক্তব্যকে ভিত্তিহীন ও কাল্পনিক উল্লেখ করে তীব্র  নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান। রাত ১১টায় সংবাদ সম্মেলনে দেয়া লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, নির্বাচনী উৎসবে আতংক ছড়িয়ে দেয়ার জন্য আওয়ামী লীগ মনোনীত  প্রার্থী গোলাম  রসুল রাহেল চৌধুরী নানা অপতৎপরতা চালিয়ে পরিবেশকে উত্তপ্ত করছেন। আচরণবিধি লঙ্ঘন করে অবৈধ প্রভাব বিস্তারের অপচেষ্টা চালাচ্ছেন। নির্বাচনী প্রচার কাজে সাড়া না পেয়ে বারবার কেন্দ্রীয় নেতাদের দিয়ে মিথ্যা  অপপ্রচার চালাচ্ছেন।  তিনি ককটেল বিস্ফারণের সঙ্গে জড়িতদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায়  আনার দাবি  জানান। এসময় উপস্থিত ছিলেন, কেন্দ্রীয় বিএনপির নির্বাহী সদস্য ও সাবেক এমপি  আলহাজ্ব শেখ সুজাত মিয়া, পৌর বিএনপির আহবায়ক ছালিক মিয়া চৌধুরী, যুগ্ম আহবায়ক ডা. আব্দুল আলীম ইয়াছিনীসহ বিএনপি ও সহযোগী সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

0Shares