সমর্থকদের সশস্ত্র মহড়া, ট্রাম্পের সামরিক কায়দায় বিদায় সংবর্ধনার অনুরোধ প্রত্যাখ্যান পেন্টাগনের

dial dial

sylhet

প্রকাশিত: ১০:৫৭ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ১৮, ২০২১

আন্তর্জাতিক ডেস্ক::যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন রাজ্যে সশস্ত্র মহড়া দেখিয়েছেন ডনাল্ড ট্রাম্পের উগ্র সমর্থকরা। তবে আইনশৃংখলা বাহিনীর ব্যাপক তৎপরতা থাকায় কোন সহিংসতার ঘটনা ঘটেনি। কট্টর ট্রাম্প সমর্থক চরম ডানপন্হী রিপাবলিকান কংগ্রেস উইমেন  মারজোরি ট্রেইলার গ্রীনের একাউন্ট  সাময়িক ভাবে বন্ধ করে দিয়েছে টুইটার। উস্কানি মূলক বক্তব্য প্রচারের দায়ে এ ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। গ্রীন জর্জিয়া থেকে এবার প্রথম নির্বাচিত হন। তিনি চরমপন্থী কিউ এ্যনন ঘেঁষা।টুইটার এনিয়ে প্রায় ৭০ হাজার এমন প্রোপাগান্ডা ছড়ানো  একাউন্ট বন্ধ করেছে।

নিরাপত্তার জন্য সারা দেশের সকল ফেডারেল প্রিজন অস্থায়ী ডাউন করেছে কতৃপক্ষ। যা বাইডেনের শপথ গ্রহণ পর্যন্ত বহাল থাকবে।ওয়াশিংটনে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। রাস্তায় টহল দিচ্ছে ন্যাশনাল গার্ডসহ নিরাপত্তা বাহিনীর সশস্ত্র সদস্যরা।

ওয়াশিংটনের মেয়র ম্যুরিয়েল বাউজার সকলকে ঘরে বসে প্রেসিডেন্ট বাইডেনের শপথ অনুষ্ঠান দেখার আহবান জানিয়েছেন। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া নগরী এড়িয়ে চলার অনুরোধ জানান মেয়র।
মিশিগান, ভার্জিনিয়া, ওরেগন, টেক্সাস সহ কিছু রাজ্যে ট্রাম্প সমর্থকরা সশস্ত্র অবস্থায় জড়ো হলেও কোন সহিংসতা করতে পারেনি আইনশৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর ব্যাপক উপস্থিতির কারণে। মিশিগানের রাজধানী লেনসিংয়ে ক্যপিটল ভবনের সামনে বোলগো ও কিউএ্যননের সাথে জড়িত প্রায় ৭৫ জন কট্টর ট্রাম্প সমর্থক ভারী অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে জড়ো হয়। তাদের অনতিদূরে বাইডেনের প্রায় অর্ধশত সমর্থকও ছিল প্রস্তুত। কিন্তু ন্যাশনাল গার্ড সহ আইনশৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর তৎপর থাকায় অপ্রীতিকর কিছু ঘটেনি। ওয়াশিংটন ডিসির নিকটবর্তী ভার্জিনিয়ার রিচমন্ডে সিটিজেন ডিফেন্স লীগ নামের একটি সংগঠন সশস্ত্র বিক্ষোভ সমাবেশের ডাক দেয়ার ফলে এই এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।ওহাইয়োর কলম্বাসে অবস্থিত রাজ্যে ক্যাপিটল ভবনে প্রায় ২০ থেকে ২৫ জনের সশস্ত্র লোকজন শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ করে। ওরেগন, টেক্সাস ও ওয়াশিংটন রাজ্যে বিক্ষোভ করেছে খুবই স্বল্প সংখ্যক ব্যক্তি।
বেশ কিছু রাজ্যে জরুরি অবস্থা জারি করেছেন রাজ্যের গভর্নররা যা বহাল থাকবে অন্তত বাইডেনের শপথ গ্রহণ পর্যন্ত। সর্বত্র সতর্কবস্থা জারি রয়েছে।

এদিকে, ভারপ্রাপ্ত ডিফেন্স সেক্রেটারি ক্রিস্টোফার মিলারের চাপে ন্যাশনাল সিকিউরিটিজ এডমিনিষ্টেশনের প্রধান কৌশলী পদে ট্রাম্পের  কট্টর সমর্থক হিসাবে বিবেচিত সাবেক রিপাবলিকান আইন প্রণেতা মাইকেল এলিসকে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। যদিও এনএসএ পরিচালক এই নিয়োগের বিরোধী ছিলেন। ট্রাম্পের প্রধান আইনজীবী রুডি জুলিয়ানী সিনেটে অভিশংসনের ট্রায়ালে ট্রাম্পের  প্রতিনিধি হিসাবে থাকতে পারেন। যদিও টাম্প জুলিয়ানীর ফি আটকে দিয়েছেন বলে খবর বেরিয়েছে।

0Shares