আবারও ঐক্যের ডাক দিলেন বাইডেনের

dial dial

sylhet

প্রকাশিত: ৮:৫০ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৯, ২০২১

আন্তর্জাতিক ডেস্ক::

যুক্তরাষ্ট্রের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের ক্ষমতা গ্রহণের আর মাত্র একদিন বাকি। স্থানীয় সময় বুধবার দুপুরে তিনি শপথ নেবেন। এরই মধ্যে সোমবার মার্টিন লুথার কিং জুনিয়র দিবস উপলক্ষে বাইডেন আবারও ঐক্যের ডাক দিয়েছেন।

জো বাইডেন নিজ শহর ডেলাওয়ার থেকে ফিলাডেলফিয়ায় দাতব্য কাজে যাওয়ার মধ্য দিয়ে মার্টিন লুথার কিং জুনিয়র দিবস পালন করেন। বলা হচ্ছে, চার বছরের বিভক্তি শেষে সকলকে ঐক্যবদ্ধ করার প্রয়াসের এটি একটি প্রতীকী উদ্যোগ।

এ উপলক্ষে এক ভিডিও বার্তায় বাইডেন বলেন, ‘আমাদের ভালোবাসার দেশটিকে নিরাপদ, ঐক্যবদ্ধ ও পুনর্গঠন করার কাজ শুরুর এখনই উপযুক্ত সময়।’

তবে ৭৮ বছরের জো বাইডেন যতই ক্ষত নিরাময় ও আশার কথা শোনান না কেন বিশ্লেষকরা বলছেন, ক্ষমতার প্রথম দিন থেকেই তাকে কঠোর বাস্তবতর মুখোমুখি হয়ে কঠিন সংকটসমূহ মোকাবিলা করতে হবে।

যুক্তরাষ্ট্রে বর্তমানে করোনা মহামারী নিয়ন্ত্রণের বাইরে, টিকা দান কর্মসূচি প্রতিনিয়ত হোঁচট খাচ্ছে। এছাড়া রয়েছে ভঙ্গুর অর্থনীতি পুনরুদ্ধারের চ্যালেঞ্জ।

এদিকে ৬ জানুয়ারি পার্লামেন্ট ভবনে সশস্ত্র হামলার ঘটনার পর থেকে অনেকটাই নীরব রয়েছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তিনি এখন পর্যন্ত নির্বাচনে তার পরাজয় স্বীকার কিংবা জয়ী প্রার্থীকে অভিনন্দন জানাননি।

যুক্তরাষ্ট্রের ঐতিহ্য অনুযায়ী বিদায়ী প্রেসিডেন্ট নতুন প্রেসিডেন্টকে ওভাল অফিসে চা চক্রে অংশ নিতে আমন্ত্রণ জানান। ট্রাম্প এক্ষেত্রেও দীর্ঘদিনের রীতি ভাঙলেন। এছাড়া বাইডেনের শপথ অনুষ্ঠানে না থাকার ঘোষণাও তিনি আগেই দিয়েছেন।

এদিকে সোমবার প্রকাশিত এক জনমত জরিপে দেখা গেছে, বিদায়ী প্রেসিডেন্ট হিসেবে ট্রাম্প তার জনপ্রিয়তার রেকর্ড সর্বনিম্ন অবস্থানে রয়েছেন। আর কোনো বিদায়ী প্রেসিডেন্ট এত কম জনপ্রিয়তা নিয়ে ক্ষমতা থেকে বিদায় নেননি।

মার্কিন সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, ট্রাম্পের সর্বশেষ কিছু সিদ্ধান্তের ঘোষণা মঙ্গলবার হতে পারে। তিনি বেশকিছু দোষী সাব্যস্ত অপরাধীকে ক্ষমা করে দিতে যাচ্ছেন।

এমনকি তিনি নিজে ও তার সন্তান যারা হোয়াইট হাউসে উপদেষ্টা ও নির্বাচনী প্রচারণায় কাজ করেছেন, তাদেরও ক্ষমা করবেন বলে জল্পনা রয়েছে।

সিএনএনের খবরে বলা হয়েছে, ক্ষমা করা হবে এরকম ১০০ লোকের তালিকা ট্রাম্পের কাছে রয়েছে।

এদিকে বুধবার সকালেই ট্রাম্প হোয়াইট হাউস ছেড়ে ফ্লোরিডায় মার এ লাগো গলফ ক্লাবে তার নিজ বাড়িতে চলে যাবেন।

বলা হচ্ছে- ট্রাম্প সকালেই যাচ্ছেন কারণ প্রেসিডেন্ট হিসেবে শেষ মুহূর্তের সুযোগটুকু তিনি নিতে চাচ্ছেন।

বুধবার দুপুরে বাইডেনের শপথ নেওয়ার মধ্যদিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্টকে বহনকারী বিমান ট্রাম্প আর ব্যবহার করতে পারবেন না। কারণ তখন থেকেই তিনি আর মার্কিন প্রেসিডেন্ট থাকছেন না।

0Shares