চট্টগ্রামে ১০০ জনের অধিক জনসমাগম নিষিদ্ধ

dial dial

sylhet

প্রকাশিত: ৯:১৯ পূর্বাহ্ণ, মার্চ ২২, ২০২১

ডায়ালসিলেট ডেস্ক::হঠাৎ করে করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় বন্দরনগরী চট্টগ্রামের কমিউনিটি সেন্টারগুলোতে ১০০ জনের অধিক মানুষ নিয়ে বিয়েশাদিসহ যেকোনো ধরনের সমাগম নিষিদ্ধ করা হয়েছে। একইসঙ্গে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত প্রকাশ্য স্থানে সভা-সমাবেশ ও অন্যান্য ধর্মীয় অনুষ্ঠান বন্ধ রাখতে বলা হয়েছে। গতকাল দুপুরে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউজে অনুষ্ঠিত জেলা উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির মাসিক সভায় জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মমিনুর রহমান এই নির্দেশনা দেন।
জেলা প্রশাসক বলেন, স্বাস্থ্যবিধি না মানার কারণে চট্টগ্রামসহ সারা দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ আবারো বেড়ে গেছে। সরকারের মন্ত্রী পরিষদের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী করোনার ঝুঁকি মোকাবিলায় এখন থেকে ক্লাব, কমিউনিটি সেন্টার, কনভেনশন হল, হোটেল-রেস্টুরেন্টগুলোতে সামাজিক ও রাজনৈতিক অনুষ্ঠানসহ অন্য অনুষ্ঠানে ১০০ জনের অধিক সমাগম নিষিদ্ধ করা হয়েছে। তিনি বলেন, সীমিত পরিসরে অনুষ্ঠান চলাকালে সম্পূর্ণ স্বাস্থ্যবিধি ও কমপক্ষে ৩ ফুট শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। এ ব্যাপারে কমিউনিটি সেন্টার ও হোটেল-রেস্টুরেন্ট মালিকদের কাছে চিঠি দেয়া হয়েছে। তবে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত প্রকাশ্য স্থানে সভা-সমাবেশ ওরস, মিলাদ মাহফিল, মহোৎসব ও অন্যান্য ধর্মীয় অনুষ্ঠান আপাতত বন্ধ থাকবে। জেলা প্রশাসক বলেন, এই আদেশ অমান্য করা হলে মোবাইল কোর্ট পরিচালনাসহ অতিথি নিয়ন্ত্রণ আইন, ১৯৮৪, দণ্ডবিধি আইন, ১৮৬০ এবং সংক্রামক রোগ প্রতিরোধ নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূল আইন, ২০১৮ এর বিধান মতে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
জেলা প্রশাসক বলেন, করোনা পরিস্থিতিতে মাস্ক পরিধানসহ শতভাগ স্বাস্থ্য নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে সমুদ্র সৈকত, পার্ক, বিনোদনকেন্দ্র ও অন্যান্য দর্শনীয় স্থানে জেলার প্রশাসনের মোবাইল কোর্ট অভিযানের পাশাপাশি অভিযান চলাকালে মানুষের মাঝে বিনামূল্যে মাস্ক বিতরণ কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে।

আসন্ন পবিত্র মাহে রমজানকে সামনে রেখে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বাজার মনিটরিং জোরদার করা হচ্ছে। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) এস এম জাকারিয়ার সঞ্চালনায় সমন্বয় সভায় জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী সাব্বির ইকবাল, সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি, অতিরিক্ত জেলা পুলিশ সুপার (উত্তর) মো. মশিউদ্দৌলা রেজা, জেলা আনসার কমান্ড্যান্ট বিকাশ চন্দ্র দাসসহ জেলার বিভিন্ন উপজেলার চেয়ারম্যানরা উপস্থিত ছিলেন।

0Shares