বৈঠক শেষে : নেতাকর্মীকে নিঃশর্ত মুক্তি, কওমি মাদরাসাগুলো খোলে দেয়ার দাবী – হেফাজতে ইসলামের

প্রকাশিত: ৯:৩৭ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১১, ২০২১

জাতীয় ডেস্ক ::

হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় দায়িত্বশীলদের এক বিশেষ জরুরি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।  আজ রবিবার সকাল ১১টায় দারুল উলূম হাটহাজারী মিলনায়তনে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের প্রধান উপদেষ্টা আল্লামা শাহ মুহিব্বুল্লাহ বাবুনগরীর সভাপতিত্বে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বৈঠক শেষে হেফাজতে ইসলামের পক্ষ কয়েকটি দাবি পেশ করা হয়।  তাদের দাবিগুলো হলো- হেফাজতের নেতাকর্মী ও সাধারণ জনগণের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত সব মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার , অন্যায়ভাবে গ্রেফতারকৃত সব নেতাকর্মীকে অবিলম্বে নিঃশর্ত মুক্তি দিতে হবে, করোনার অজুহাতে কওমি মাদরাসা বন্ধের ঘোষণা প্রত্যাহার করে কওমি মাদরাসা লকডাউনের আওতামুক্ত রাখতে হবে, পবিত্র রমজান মাসে খতমে তারাবি, ইতিকাফসহ কোনো ধরনের ইবাদতে বাধা প্রদান করা যাবে না, ধর্মীয় উপাসনালয় মসজিদকে সম্পূর্ণ লকডাউনের আওতামুক্ত রাখতে হবে এবং প্রশাসন কর্তৃক মাদরাসায় মাদরাসায় গিয়ে তথ্য সংগ্রহের নামে হয়রানি বন্ধ করতে হবে।

হেফাজতের ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হকের দ্বিতীয় বিয়ের ঘটনা তার ব্যক্তিগত বিষয় বলে মন্তব্য করেছেন সংগঠনটির মহাসচিব জুনায়েদ বাবুনগরী। এ বিষয়ে হেফাজতের কোনো বক্তব্য নেই বলেও জানিয়েছেন তিনি। সভাশেষে সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

এদিকে জরুরি এ সভায় আলোচিত হেফাজত নেতা মামুনুল হকের সাম্প্রতিক ঘটনাবলী নিয়ে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। বিষয়টিকে ব্যক্তিগত আখ্যা দিয়ে এ নিয়ে কোনো ধরনের আলোচনা কিংবা সিদ্ধান্ত হয়নি।

আলোচিত ঘটনার মামুনুল হকের দ্বিতীয় স্ত্রী বলে স্বয়ং মামুনুল হক ব্যাখ্যা দিয়েছেন। মামুনুল হককে হেফাজত থেকে বহিষ্কার করা হচ্ছে এ ধরনের একটি প্রচার চালানো হচ্ছে উল্লেখ করা হলে হেফাজতের কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক ও মেখল হামিউসুন্নাহ মাদরাসার সিনিয়র শিক্ষক মাওলানা জাকারিয়া নোমান ফয়জি বলেন, এটি হেফাজত বিরোধীদের অপপ্রচার। মামুনুলকে বহিষ্কারের কোনো প্রশ্নই আসে না।

উল্লেখ্য, গত ৩ এপ্রিলে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে রয়্যাল রিসোর্টে এক নারীর সঙ্গে হেফাজতে ইসলাম নেতা মামুনুল হক আটক করা হয়। তবে তিনি দাবি করেন, ওই নারী তার দ্বিতীয় স্ত্রী। মামুনুল হকের কথিত দ্বিতীয় স্ত্রীকে নিয়ে চলমান বিতর্কে তীব্র অসন্তোষ তৈরি হয়েছে ।

এ নিয়ে গত ৫ এপ্রিল (সোমবার) দুপুরে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের ঢাকাস্থ কেন্দ্রীয় কমিটির শীর্ষ নেতাদের জরুরি বৈঠক জামিয়া রাহমানিয়ায় অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে মামুনুলের বিয়েকে ‘বৈধতা’ দেওয়া হয়।

0Shares