মৃত্যুর কাছে হেরে গেল জোড়া লাগা দুই শিশু

dial dial

sylhet

প্রকাশিত: ৯:৪৩ অপরাহ্ণ, মে ২০, ২০২১

ডায়ালসিলেট ডেস্ক::

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের শমসেরনগর ইউনিয়নের এক পান ব্যবসায়ীর ঘরে জোড়া লাগা দুই শিশুর জন্ম হয়েছিল। ১৪ দিন চিকিৎসাধীন থাকার পর অবশেষে মৃত্যুর কাছে হেরে গেছে জোড়া লাগা ওই দুই শিশু। বুধবার (১৯ মে) রাতে তারা মারা গেছে।

জানা গেছে, উপজেলার শমসেরনগর বাজারের পান ব্যবসায়ী জুয়েল মিয়ার স্ত্রী তাকলিমা। গত ৫ মে মৌলভীবাজার জেলা সদরের একটি প্রাইভেট হাসপাতালে সিজারের মাধ্যমে জোড়া লাগানো দুই কন্যাশিশুর জন্ম দেন। জন্মকালীন সময় থেকেই দু’জনের পেট একত্রে জোড়া লাগানো ছিল। তবে তাদের হাত, পা, মুখ ও মাথাসহ অন্যান্য অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ আলাদা ছিল।

এ অবস্থায় দুই মেয়েকে আলাদা করতে সহযোগিতা চান জুয়েল মিয়া ও তাকলিমা দম্পতি। তখন অনেকেই সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেন। সকলের সহযোগিতা পেয়ে আশার আলো দেখছিলেন দুই শিশুর বাবা-মা। শিশুদের নিয়ে ঢাকায় শিশু হাসপাতালে ভর্তি হন চিকিৎসার জন্য। অবশেষে ১৪ দিনের মাথায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় জোড়া লাগা দুই শিশু বুধবার রাত ৯টার দিকে ওই হাসপাতালে মারা যায়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে শিশুদের বাবা মো. জুয়েল মিয়া বলেন, অনেক চেষ্টার পরেও মৃত্যুর কাছে হার মানতে হলো সদ্য জন্মগ্রহণ করা আমার দুই শিশুকে।

আজ বৃহস্পতিবার (২০ মে) দুই শিশুর মরদেহ ঢাকা থেকে বাড়িতে আনার পর দুপুরে জানাজা শেষে শিংরাউলী কবরস্থানে তাদের দাফন সম্পন্ন হয়েছে।

0Shares