আতিকের নেতৃত্বের অনাস্থা প্রকাশ তৃণমূল জাপার

dial dial

sylhet

প্রকাশিত: ৮:৫১ অপরাহ্ণ, মে ২৪, ২০২১

ডায়াল সিলেট ডেস্ক ::

সিলেট-৩ আসনের উপনির্বাচনকে কেন্দ্র করে ‘ইউটার্ন’ আতিকের। ফের সিলেটমুখী হয়েছেন তিনি। এর আগে তিনি ছিলেন হবিগঞ্জের বাসিন্দা। তিনি সিলেটে ফিরে আসায় দলের নেতাকর্মীদের ভেতরেই তাকে নিয়ে জল্পনা শুরু হয়েছে। এর মধ্যেই আতিককে উদ্দেশ্য করেই দক্ষিণ সুরমা উপজেলা জাতীয় পার্টির দায়িত্বশীল দুই নেতা বিবৃতি দিয়েছেন। আর এই বিবৃতিতে তারা দলের নেতাকর্মীদের বিভ্রান্ত না হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য আতিকুর রহমান আতিক।

নিজ বাড়ি সিলেট-৩ আসনে হওয়ার ফলে এ আসনকে ঘিরে আতিকের রাজনীতি। দলের চেয়ে ভোটের রাজনীতিতে সবচেয়ে বেশি সরব আতিকুর রহমান আতিক। এ কারণে নির্বাচন এলেই তাকে নিয়ে তোড়জোড় শুরু হয়। তিনিও নির্বাচন এলেই ঝাঁপিয়ে পড়েন ভোটের মাঠে। ২০০৮ সাল থেকে নিজ এলাকায় সাফল্য হতে পারেননি আতিকুর রহমান আতিক। প্রয়াত এমপি মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী ‘থিতু’ হয়ে বসেছিলেন এ আসনে। ফলে এ আসনে মহাজোটের মনোনয়ন না পেয়ে হবিগঞ্জে চলে গিয়েছিলেন আতিক। ওখানকার রাজনীতিতে তিনি সবার কাছে পরিচিত। কিন্তু মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরীর মৃত্যুর পর আবার ‘ইউটার্ন’ দিয়েছেন আতিক। আবারো তিনি হয়েছেন সিলেটমুখী। পুরোপুরি নির্বাচনী মাঠ দখলে চালাচ্ছেন তৎপরতা। এদিকে- আতিকের এই তৎপরতায় জাতীয় পার্টির অভ্যন্তরেও তোলপাড় চলছে। কেউ কেউ তার পক্ষে অবস্থান নিলেও দায়িত্বশীলরা তাকে সমঝে নিচ্ছেন না। এমনকি আতিকের নির্বাচনী কর্মকাণ্ডে তারা বিব্রতও হচ্ছেন।

সম্প্রতি দক্ষিণ সুরমা উপজেলা জাতীয় পার্টির আহ্বায়ক শাহ আলম ও সদস্য সচিব তাজ উদ্দিন আহমদ এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন যে- ‘সিলেট-৩ আসনের উপনির্বাচনকে কেন্দ্র করে কোনো কোনো সম্ভাব্য প্রার্থী সুকৌশলে জাতীয় পার্টিকে ও দক্ষিণ সুরমার নেতাকর্মীদের হেয়প্রতিপন্ন করার চক্রান্তে মেতে উঠেছেন। তারা উপজেলা জাতীয় পার্টির এবং অধীনস্থ ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড কমিটির নেতাকর্মীকে পাশ কাটিয়ে চলছেন। নতুন করে ওয়ার্ড ও সেন্টার কমিটি গঠনের কাজ গোপনে চালাচ্ছেন।’ আর তাকে এতে সহযোগিতা করছেন জেলা জাতীয় পার্টির সাবেক দপ্তর সম্পাদক মামুনুর রশীদ মামুন। তারা নির্বাচনী মাঠে থাকা সম্ভাব্য প্রার্থীদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন- ‘আপনারা দলের সাংগঠনিক কাঠামো এবং নেতাকর্মীদের সঙ্গে সংখ্যতা বজায় রেখে কাজ করুন। নতুবা নেতাকর্মীরা ভবিষ্যতে বিভ্রান্তিতে পড়বেন। বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ প্রার্থীদের আচরণে বিভ্রান্তিতে পড়ে ক্ষুব্ধ হওয়া নেতাকর্মীদের বিশৃঙ্খলা অবস্থার সৃষ্টি না করে ধৈর্য্য ধারণের আহ্বান জানান তারা।’

0Shares