ফেনীতে ভারতফেরত ৩ নারীর একজনের করোনা শনাক্ত

dial dial

sylhet

প্রকাশিত: ১০:৪৭ পূর্বাহ্ণ, জুন ৫, ২০২১

ডায়ালসিলেট ডেস্ক::ফেনীর ফুলগাজী সীমান্ত দিয়ে অবৈধভাবে প্রবেশকালে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) হাতে আটক সেই ৩ নারীর একজনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। আদালতের নির্দেশে ফুলগাজী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কোয়ারেন্টিনে থাকা ভারতফেরত মোছা. খালেদা আক্তার (২২) নামে ওই নারীর করোনা শনাক্ত হয়।

তৃতীয় দফা পরীক্ষায় শুক্রবার রাতে মোছা. খালেদা আক্তারের করোনা শনাক্ত হয় বলে জানান ফুলগাজী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা এ বি এম মোজাম্মেল হক।

করোনা পজিটিভ মোছা. খালেদা আক্তারের বাড়ি কক্সবাজার জেলার পেকুয়া উপজেলায়। দেড় মাস পূর্বে তিনিসহ আরো দুই নারী যশোর হয়ে ভারতে গিয়েছিলেন।

ফেনীস্থ ৪ বিজিবি অধিনায়ক লে. কর্নেল মোহাম্মদ আব্দুর রহিম জানান, গত ২০শে মে সকালে শুক্রবার ফুলগাজীর আমজাদহাট ইউনিয়নের উত্তর তারাকুচা সীমান্ত দিয়ে ভারত থেকে অবৈধভাবে দেশে প্রবেশকালে তিন নারীকে আটক করে বিজিবি। জিজ্ঞাসাবাদে আটককৃতরা বিজিবিকে জানিয়েছিলো একমাস আগে তারা যশোরের বেনাপোল সীমান্ত দিয়ে ভারতে আত্মীয়ের বাড়িতে বেড়াতে গিয়েছিল। লকডাউনের আটকে পড়ায় তারা বাংলাদেশে আসতে পারেননি। পরে তারা ভারতীয় লোকের সহায়তায় অবৈধভাবে ফেনীর ফুলগাজী সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশের প্রবেশ করে।

আটকের সময় তাদের কাছে কাপড়ের ব্যাগ ও একটি মোবাইল পাওয়া যায়।

ফুলগাজী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এএসএম নুরুজ্জামান জানান, বিজিবির হাতে আটক রাজধানী ঢাকার মিরপুর এলাকার মোছা. নুর জাহান আক্তার (২৩), ঢাকার সাভারের চামরা গ্রামের মোছা. সেলিনা আক্তার (২৪), কক্সবাজারের পেকুয়া থানার নাপিতখালি গ্রামের মোছা. খালেদা আক্তারকে (২২) থানায় হন্তান্তর করেন বিজিবি। ওই সময় বিজিবি বাদী হয়ে তাদের বিরুদ্ধে অবৈধ অনুপ্রবেশের দায়ে মামলা দায়ের করে। ওই মামলায় তাদের আদালতে প্রেরণ করা হলে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ধ্রুব জ্যোতি পাল তাদের জামিন দিয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে স্বাস্থ্য কর্মকর্তার অধীনে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিন নিশ্চিত করতে নির্দেশ দেয়। তখন থেকে তারা পুলিশি পাহারায় ফুলগাজী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কোয়ারেন্টিনে রয়েছে।

ফুলগাজী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা এ বি এম মোজাম্মেল হক বলেন, দুই দফায় ওই তিন নারীর ফলাফল নেগেটিভ আসে। বৃহস্পতিবার কোয়ারেন্টিন শেষে আবার তাঁদের নমুনা সংগ্রহ করলে শুক্রবার রাতে একজনের করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়। কোয়ারেন্টিন শেষে সুস্থ্য দুই নারী ও করোনা থেকে সুস্থ্য হলে অপর নারীও বাড়ি ফিরে যাবেন।

এ/

0Shares