কমলগঞ্জে মোট করােনা শনাক্ত ২১৪

dial dial

sylhet

প্রকাশিত: ৩:৩৬ অপরাহ্ণ, জুলাই ১১, ২০২১

ডায়ালসিলেট ডেস্ক::মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে করোনার নমুনা পরীক্ষায় মানুষজনের আগ্রহ কম। গত বছর মার্চ মাসের শেষ দিকে নমুনা সংগ্রহ শুরু হলে (১০ জুলাই-২১) এখন পর্যন্ত ১৫ মাসে করোনার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে মাত্র ১৫৭১ জনের। এর মাঝে করোনা শনাক্ত হয়েছিলেন ২১৪ জন। গত ১৫ মাসে কমলগঞ্জে নমুনা প্রদানকারী ১৩৫৭ জন করোনা পজেটিভ হননি। এ পর্যন্ত প্রতিষেধক টিকা গ্রহন করেছেন ১৪ হাজার ৩৭২ জন।

কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. এম মাহবুবুল আলম ভূঁইয়া বলেন, (১০ জুলাই-২১) এখন পর্যন্ত উপজেলায় করোনা পরীক্ষার নমুনা দিয়েছেন ১৫৭১জন। করোনা শনাক্ত হয়েছেন ২১৪ জন। এদের সবাই নিজ বাড়িতে আইসোলেশনে থেকে চিকিৎসা সেবা গ্রহন করে সুস্থ্য হয়েছেন। এখনও ২৩ জন বাড়িতে আইসোলেশনে রয়েছেন।
কমলগঞ্জে করোনা প্রতিষেধক টিকার নিবন্ধন করেছেন ৯ হাজার ৭৫৯ জন। এর মাঝে প্রথম ডোজ গ্রহন করেছেন ৭ হাজার ৭৫৯ জন। আর দ্বিতীয় ডোজ গ্রহন করেছেন ৬ হাজার ২৯০ জন। টিকা স্বল্পতায় দ্বিতীয় ডোজ গ্রহন করতে না পারলেও প্রথম ও দ্বিতীয় ডোজ মিলিয়ে টিকা গ্রহন করেছেন ১৪ হাজার ৩৭২ জন।
কমলগঞ্জে মাস্কবিহিন মানুষজনের বেপরোয়া চলাচলে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি বাড়ার আশঙ্কা থাকলেও মানুষজন কম হারে করোনা পরীক্ষার নমুনা দিচ্ছেন। কুরবানীর ঈদকে সামনে রেখে পশুর হাটে কড়া লকডাউন উপেক্ষা করে লোক সমাগম এত বেশী যে, করোনা সংক্রামনের ঝুঁকি বাড়ছে। মানুষজনের সচেনতা ও মাস্ক পড়ার তাগিদ দেন তিনি ।
কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশেকুল হক বলেন, কমলগঞ্জের বেশীর ভাগ মানুষজন মাস্ক পরেন না। চলতি কঠোর লকডাউনে সেনা ও পুলিশ সদস্যদের সহযোগিতায় প্রতিদিনই বিভিন্ন এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে জরিমানা করা হচ্ছে। ভ্রাম্যমাণ আদালত চলে গেলে আবারও মানুষজন বেপরোয়া হয়ে পড়ে।

ডায়ালসিলেটএম/৪

0Shares