ফয়সল কাদির নানা অপকর্মে জড়িত’

dial dial

sylhet

প্রকাশিত: ৫:১৮ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৫, ২০২১

ডায়ালসিলেট::সিলেটের সাংবাদিক পরিচয়ে ট্রাফিক পুলিশের সঙ্গে খারাপ আচরণের ঘটনায় মামলার পর ফয়সল কাদিরকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের একটি দল।

বুধবার (১৪ জুলাই) বেলা ২টার দিকে র‌্যাব-৯ কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে র‌্যাব জানায়, ফয়সল কাদির নানা অপরাধ কর্মকাণ্ডে জড়িত। সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে তিনি এসব অপকর্ম চালিয়ে যাচ্ছেন।

র‌্যাব-৯ এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. সামিউল আলম সাংবাদিকদের বলেন, ‘সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী চলমান লকডাউন বাস্তবায়নে গত ৯ জুলাই সিলেটের শাহপরাণ থানাধীন সুরমা গেটে চেকপোস্ট বসিয়ে দায়িত্ব পালন করছিলেন একদল ট্রাফিক পুলিশ। বিকেলে হেলমেটবিহীন তিন আরোহী নিয়ে কাগজপত্রবিহীন একটি মোটরসাইকেলে চড়ে সুরমা গেট দিয়ে যাচ্ছিলেন সাংবাদিক পরিচয়দানকারী ফয়ছল কাদির। দায়িত্বরত পুলিশ সার্জেন্ট তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে তিনি মোটরসাইকেলের কাগজপত্র এবং নিজের ড্রাইভিং লাইসেন্স দেখাতে পারেননি। গাড়ি আটক করায় উত্তেজিত হয়ে তার একটি ফেসবুক পেজ থেকে লাইভের মাধ্যমে পুলিশের বিরুদ্ধে বিভিন্ন মিথ্যা তথ্য প্রচার শুরু করেন।’

এ ঘটনার পর ফয়ছলের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের করে পুলিশ। এর পর থেকে তার উপর আমরা নজর রাখছিলাম। অবশেষে মঙ্গলবার দিনগত (১৪ জুলাই) মধ্যরাতে সিলেট সদর উপজেলার পীরেরবাজার থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

মো. সামিউল আলম আরও বলেন, ‘গ্রেপ্তারের পর ফয়ছল কাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করে এবং এর বাইরেও আমরা খোঁজ-খবর নিয়ে জানতে পেরেছি- তার মূল পেশা হচ্ছে সিএনজি অটোরিকশার টোকেন বাণিজ্য ও নানা ভুঁইফোড় পত্রিকার স্টিকার বাণিজ্য। এর মাধ্যমেই সে অবৈধভাবে অর্থ উপার্জন করে।’

বিকেল ৩টার দিকে ফয়ছল কাদিরকে এসএমপির শাহপরাণ থানায় হস্তান্তর করে র‌্যাব। শাহপরাণ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দ আনিসুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, ‘বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে তাকে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। তাকে রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন জানানো হবে।’

ডায়ালসিলেট এম/২

0Shares