নয়া দিল্লিতে মুসলিমবিরোধী স্লোগান, আটক ৫

প্রকাশিত: ৬:০০ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১০, ২০২১

নয়া দিল্লিতে মুসলিমবিরোধী স্লোগান, আটক ৫

আন্তর্জাতিক ডেস্ক::ভারতের রাজধানী নয়া দিল্লিতে মুসলিম বিরোধী স্লোগান দেয়ায় কমপক্ষে ৫ জনকে আটক করে নিজেদের হেফাজতে নিয়েছে পুলিশ। এর মধ্যে রয়েছেন ভাতীয় জনতা পার্টির সাবেক এক নেতা ও সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অশ্বিনী উপাধ্যায়। এ খবর দিয়ে অনলাইন আল জাজিরা বলছে, রোববার ‘ঔপনিবেশিক আমলের ভারতীয় আইনগুলো’ বাতিল করার দাবিতে প্রতিবাদ বিক্ষোভের ডাক দেন বিজেপির এই নেতা। কিন্তু তা পরিণত হয় মুসলিম বিরোধী বিক্ষোভে। সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের বিরুদ্ধে সহিংসতায় ডাক দেয় কমপক্ষে ১০০ মানুষ। এ সময়কার যেসব ভিডিও প্রকাশ পেয়েছে তাতে সহিংসতাকারীদের বলতে শোনা যায়- মুসলিমরা হলো ‘পিগ’। এ ছাড়া সংখ্যালঘুদের ‘গণহারে হত্যা’ করার ডাক দেয়া হয়। উল্লেখ্য, ১৩৫ কোটি মানুষের ভারতে এই সংখ্যালঘুরা হলেন শতকরা প্রায় ১৪ ভাগ। আল জাজিরা লিখেছে, ওই বিক্ষোভে যেসব স্লোগান দেয়া হয়েছে তা এরকম- ‘জাব মুল্লে কা’তে জায়েঙ্গে, উ রাম রাম চিল্লায়েঙ্গে’। অর্থাৎ যখন মুসলিমদেরকে হত্যা করা হবে, তখন তারা রাম নাম উচ্চারণ করবে। ‘হিন্দুস্তান ম্যায় রাহনা হোগা, তো জয় শ্রীরাম কাহনা হোগা’- অর্থাৎ যদি তুমি ভারতে বসবাস করতে চাও, তবে অবশ্যই তোমাকে বলতে হবে জয় শ্রীরাম। উল্লেখ্য, সপ্তদশ শতাব্দীতে অযোধ্যায় নির্মিত বাবরি মসজিদ ধ্বংসে নেতৃত্ব দেয় বিজেপি। এর ফলে রাজনৈতিক অর্জন করে তারা। ১৯৯২ সালে এই মসজিদটি ভেঙে ফেলা হয়। গত বছর সেখানে রামমন্দির নির্মাণের জন্য ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।
ওদিকে নয়া দিল্লি পুলিশের একজন মুখপাত্র বলেছেন, মুসলিম বিরোধী স্লোগান দেয়ার কারণে সোমবার রাতে অশ্বিনী উপাধ্যায় ও অন্য চারজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তারা আটক করেছে। ঘটনার নেপথ্যে থাকার জন্য অজ্ঞাত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে প্রাথমিকভাবে মামলা করেছে পুলিশ। আল জাজিরা লিখেছে, এ ঘটনা ঘটেছে ভারতের রাজধানী নয়া দিল্লিতে। পার্লামেন্ট ভবন থেকে যার দূরত্ব আধা মাইলের মধ্যে। এমন স্থানে এ রকম ঘটনায় দিল্লিতে বসবাসকারী মুসলিম অধিবাসীরা বিস্মিত। কারণ, গত বছরেই তারা এই শহরে ভয়াবহ দাঙ্গা দেখেছেন। ৩০ বছরেরও বেশি সময়ের মধ্যে রাজধানী দিল্লিতে গত বছর ফেব্রুয়ারিতে ওই ধর্মীয় সহিংসতা দেখা দেয়। এতে নিহত হন কমপক্ষে ৫৩ জন। এর বেশির ভাগই মুসলিম। ২০১৯ সালে বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তানের অমুসলিম নাগরিকদের নাগরিকত্ব দেয়ার একটি বিল পাস করে নরেন্দ্র মোদি সরকার। এর বিরুদ্ধে দেশজুড়ে বিক্ষোভকালে ওই দাঙ্গা দেখা দেয়।

ডায়ালসিলেট এম/

0Shares