আমি থেমে যাবার সিদ্ধান্ত  নিয়েছি -এড. সামসুজ্জামান

প্রকাশিত: ১:৩৬ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৮, ২০২১

আমি থেমে যাবার সিদ্ধান্ত  নিয়েছি -এড. সামসুজ্জামান

সোহেল আহমদ পাপ্পু :: সিলেটে বিএনপি ও অঙ্গসংগঠন যেন এক বিচ্ছিন্নে একাকার। দলের মধ্যে যেন নেই কোন সঠিক নেতৃত্ব। দীর্ঘদিন থেকে অনেক কমিটি চলছে আহবায়ক কমিটি দিয়ে নেতৃত্ব। সিলেট পূর্ণাঙ্গ কমিটি হলে দলটি হবে যতটা শক্তিশালী তার বিপরীতে কেন্দ্রীয় নেতাদের অনেক ভুল সিদ্ধানেতও সেই কমিটি শুধু আহবায়ক কমিটিতে এসে থেমে যায়।

এ যেন আধিপত্য বিস্তারে জোর যার মুল্লুক তার। যার পাল্লা ভারী তার নেতৃত্ব চলবে এমনটাই বলছেন সিলেটের শীর্ষ অনেক নেতারা। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপি এক নেতা বলেন, বর্তমানে সিলেটে সেচ্ছাসেবক দলে জেলা ও মহানগর আহবায়ক কমিটিতে অনুমোদন পেয়েছে। সেখানে বিগতদিনে আন্দোলন সংগ্রামে মামলা ও হামলারও স্বীকার হয়েছেন অনেক ত্যাগী নেতারা যারা বর্তমান কমিটিতে কোন স্থান পাননি । যা সত্যি খুবই দু:খজনক।

এর আগে গত  বছরের কেন্দ্রীয় কমিটির মাধ্যমে সিলেট জেলা ও মহানগর যুবদলের আহবায়ক কমিটির অনুমোদন পায়। বিগত দেড় যুগ ধরেও সেই একই অবস্থা ছিল আহবায়ক কমিটি নিয়ে। এরপর দেড়যুগ পরে আবার জেলা ও মহানগর যুবদলের আহবায়ক কমিটি গঠন করা হলেও এখন পর্যন্ত পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করতে ব্যর্থ হয়েছে  বর্তমান আহবায়ক কমিটি। এতে রাজনীতি করতে আশা রাজপথে থাকা অনেক ত্যাগী নেতারা দলের গুরুত্বপূর্ণ পদ থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন।

ঠিক একই অবস্থা সিলেট বিএনপির যেখানে বাইরে বাইরে সব ঠিকটাক আর ভিতরে চলছে নিজেদের মধ্যে প্রভাব বিস্তারের জন্য অস্থিত্বের লড়াই। এনিয়ে চলছে সিলেটের নেতাকর্মীদের ব্যাপক কার্যক্রম। তবে একটি সূত্র জানিয়েছে, আগামী ১সপ্তাহের মধ্যে সিলেট মহানগর বিএনপি আহবায়ক কমিটি অনুমোদন পেতে যাচ্ছে।

এদিকে, সিলেটে এক সময়ের রাজপথ কাপানো বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী সেচ্ছাসেবক দলের আহবায়ক এড.সামসুজ্জামান জামানের নেতৃত্বে বিগত সময়ে মিছিল, সমাবেশ, দলীয় কর্মসূচীতে তার নেতৃত্বে হাজার হাজার নেতাকর্মীদের নিয়ে আন্দোলন সংগ্রাম করেছিলেন। এখন তারা যেন সেই সঠিক মূল্যায়ন থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। এটা যেন  কেন্দ্রীয় নেতাদের চোখে দেখেও তারা নিজেদের চোখ আড়াল করে রাখছেন।

অন্যদিকে, গতকাল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে  দলের জন্য যেন তার  জীবনে যতটুকু সময় ব্যয় করেছেন সুষ্টু চিন্তাধারায় দলকে একটি শক্তিশালী করে তোলার যে প্রত্যাশা করেছিলেন তা হয়তো আশার আলোটি নেবে গেছে। সামসুজ্জামান জামানের  আবেগঘন সেই স্টেটাস হুবুহু তুলে ধরা হলো –

প্রিয় সহযোদ্ধা-সহকর্মী,শুভানুধ্যায়ী
আস্সালামু আলাইকুম
জীবনের চলার পথে সব কাজ সফল হয় না l নিষ্টা পরিশ্রম আর নিরন্তর সংগ্রাম এর ফলাফল যদি সকল সময় অনুকূল হতো তাহলে মানবকুল প্রতিকূল পরিস্তিতির অভিজ্ঞতার শিক্ষা কখনোই লাভ করতে পারতো না l
আমি এটা বলি না যে আমরা ভুল পথে জীবন উৎসর্গ করেছি , তবে হাঁ এটা বলতে ই পারি …..আমরা একটা অন্ধকার ঘরে কালো বিড়াল খুঁজছি,যে ঘরে আদতেই বিড়ালটি নেই l (শ্রুডিনজার থিওরি)
এখন কথা হলো তারপরে কি ? আমি বলি কি ইচ্ছায় অথবা অনিচ্ছায় একসময় তো বিদায় বলতে হয় l
আপনারা যারা চলতে চান আপনাদের পথ মসৃণ হোক ……আমি থেমে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি l
ধণ্যবাদ l

 

ডায়ালসিলেট এম/

0Shares

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ