বিএনপি নেতা জামানের পদত্যাগ

প্রকাশিত: ১০:১৮ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ১৯, ২০২১

বিএনপি নেতা জামানের পদত্যাগ

সিলেট বিএনপি থেকে পদত্যাগ করেছেন কেন্দ্রীয় সহ-স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক এডভোকেট শামসুজ্জামান বুধবার রাতে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে দেয়া এক চিঠিতে এ পদত্যাগ করেন। পরে সিলেটে তার অনুসারীদের সঙে এ নিয়ে সভায় এ ঘোষণা দেন। এ সময় তিনি জানান, তাঁর মতামত ও পরামর্শ উপেক্ষা করে সদ্য ঘোষিত সিলেট জেলা ও মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের কমিটি অনুমোদন দেওয়ায় তিনি এ সিদ্ধান্ত নেন। জামান বলেন, ১৯৮৫ সাল থেকে ছাত্ররাজনীতির মাধ্যমে বিএনপিতে যুক্ত হই। বিএনপির দুর্দিনে এই দলকে প্রতিষ্ঠা করতে জীবনের সোনালী সময় দিয়েছি। সাধ্যমত অর্থও ব্যয় করেছি। সীমাহীন প্রতিকূলতার মাঝে দলকে প্রতিষ্ঠা করতে কাজ করেছি। আমি কখনোই হালুয়া রুটির ভাগ নেইনি, কিংবা অনৈতিক সুবিধা গ্রহণ করিনি। তিনি বলেন, অত্যন্ত দুঃখ ও পরিতাপের বিষয় হলো গতকাল সিলেট জেলা ও মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের কমিটি ঘোষিত হয়েছে। বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সহ সেচ্ছাসেবক সম্পাদক হওয়া সত্ত্বেও জেলা ও মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের কমিটি ঘোষিত হলো আমার মতামত ও পরামর্শ উপেক্ষা করে। সর্বোপরি যেসব সহযোদ্ধা আন্দোলন করতে গিয়ে জীবন বাজি রেখেছিল, গুলিবিদ্ধ হয়েছিল, এমনকি সমাজ-সংসার থেকে বিতাড়িত হয়েছিল, তাদেরকে চরমভাবে উপেক্ষা করে উপহাসের পাত্রে পরিণত করা হলো। তিনি আরো বলেন, আজকে অত্যন্ত ব্যথিত চিত্তে জানতে ইচ্ছে করে আপনার দলে নেতৃত্ব পেতে হলে যোগ্যতার মাপকাঠিটা কি? যারা দেশ ও দলকে ভালবাসে, জীবন বাজি রাখে, দুর্দিনে যারা বিশ্বস্ত থাকে, বন্দুকের নলের সামনে বুক চিতিয়ে দাঁড়ায়, কমিটিতে তাদের পদ পাওয়া উচিত, নাকি যারা লবিং-তদবির অথবা বিশেষ ব্যবস্থায় সবকিছু হাসিল করে তাদের পাওয়া উচিত? যে দলটাকে ভালবাসে তিল তিল করে বিনির্মাণ করেছিলাম আজকে সেই দলে আমরাই অনাহুত। আপনারা প্রায়শই গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার কথা বলেন, রাষ্ট্রের কাছে ন্যায় ইনসাফের দাবি তুলেন কিন্তু নিজের অন্তর আত্মাকে একবার জিজ্ঞেস করে দেখব কিনা?

আমি থেমে যাবার সিদ্ধান্ত নিয়েছি ,এডভোকেট শামসুজ্জামান . জীবনের চলার পথে সব কাজ সফল হয় না ।নিষ্টা পরিশ্রম আর নিরন্তর সংগ্রাম এর ফলাফল যদি সকল সময় অনুকুল হতো তাহলে মানবকুল প্রতিকুল পরিস্থিতির অভিজ্ঞতার শিক্ষা কখনো লাভ করতে পারতো না ।আমি এটা বলিনা যে আমরা ভুল পথে জীবন উৎসর্গ করেছি,তবে হ্যা এটা বলতেই পারি আমরা একটা অন্ধকার ঘরে কালো বিড়াল খোজেছি ,যে ঘরে আদতেই বিড়ালটি নেই ।(শ্র্রডিনজার থি্ওরি)এখন কথা হলো তারপরে কি ? আমি বলি ইচ্ছায় অথবা অনিচ্ছায় এক সময় তো বিদায় বলতে হয় । আপনারা যারা চলতে চান আপনাদের পথ মসৃণ হোক ….আমি থেমে যাবার সিদ্ধান্ত নিয়েছি ।তিনি তার ফেসবুক পেইজে এক স্ট্যাটাসে এসব বলেন।

ডায়ালসিলেট এম/

0Shares