বিশ্বনাথে ৪র্থ শ্রেণির ছাত্রীকে ‘ধর্ষণ’, কিশোর গ্রেপ্তার

প্রকাশিত: ৭:৫৭ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৬, ২০২১

বিশ্বনাথে ৪র্থ শ্রেণির ছাত্রীকে ‘ধর্ষণ’, কিশোর গ্রেপ্তার

ডায়ালসিলেট ডেস্ক;:সিলেটের বিশ্বনাথে ৪র্থ শ্রেণিতে পড়ুয়া এক শিক্ষার্থী ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় গতকাল বুধবার (২৫ আগস্ট) রাতে ইমন মিয়া (১৫) নামের এক কিশোরকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

ইমন মিয়া নেত্রকোনা জেলার কেন্দুয়া থানার বাড়ই গ্রামের আতিক মিয়ার ছেলে। সে বর্তমানে বিশ্বনাথ উপজেলার পূর্ব শ্বাসরাম গ্রামের অস্থায়ী বাসিন্দা। আজ বৃহস্পতিবার (২৬ আগস্ট) দুপুরে তাকে সিলেটের আদালতে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ ও মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার সদর ইউনিয়নের পশ্চিম শ্বাসরাম গ্রামের ৪র্থ শ্রেণিতে পড়ুয়া ওই ছাত্রী বুধবার বিকেলে খেলার উদ্দেশে পার্শ্ববর্তী গ্রাম পূর্ব শ্বাসরামে তার সহপাঠীর বাড়িতে যায়। একপর্যায়ে ওই ছাত্রীর বান্ধবী পুকুরঘাটে গেলে সে বান্ধবীর মায়ের সঙ্গে কথা বলছিল। তখন পাশের বাড়িতে বসবাসকারী কিশোর ইমন তাকে ডেকে নিয়ে যায়। এরপর গ্রামের সেলিম মিয়ার রান্নাঘরে নিয়ে গিয়ে তাকে ধর্ষণ করে পালিয়ে যায় ইমন। ঘটনাস্থলে অচেতন অবস্থায় পড়ে থাকে ওই ছাত্রী। দীর্ঘ সময় বাড়িতে তার অনুপস্থিতি দেখে অনেক খোঁজাখুজি করে ওই বাড়ির রান্নাঘর থেকে তাকে উদ্ধার করা হয়।

খবর পেয়ে রাতেই অভিযুক্ত কিশোরকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পরে তার বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করা হয়।

এ ব্যাপারে বিশ্বনাথ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গাজী আতাউর রহমান বলেন, ধর্ষণের অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত কিশোরকে গ্রেপ্তার করে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। তদন্তসাপেক্ষে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ডায়ালসিলেট এম/

0Shares

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ