পীরগঞ্জে নৈশকোচে ডাকাতি ছুরিকাঘাতে চালক নিহত

প্রকাশিত: ৯:৩২ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২, ২০২১

পীরগঞ্জে নৈশকোচে ডাকাতি ছুরিকাঘাতে চালক নিহত

ডায়ালসিলেট ডেস্ক;:রংপুর-ঢাকা মহাসড়কে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা পঞ্চগড়গামী যাত্রীবাহী কোচ (ঢাকা মেট্রো-ব-১৫-৩৮১০) হানিফ পরিবহনে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। গত মঙ্গলবার দিবাগত রাতে রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলার সীমান্তবর্তী বিটিসি মোড়ে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় বাসচালক মনজুর হোসেন ডাকাতদলের এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাতে নিহত ও লিটন ইসলাম নামে এক যাত্রী গুরুতর আহত হয়েছেন। নিহত চালক ঢাকার লালবাগ এলাকার মৃত মজনু মিয়ার পুত্র।

বাসের সুপারভাইজার পইমুল ইসলাম, হেলপার বুলবুল ও আহত যাত্রী লিটন ইসলাম এ প্রতিবেদককে জানান, মঙ্গলবার দিবাগত রাত ৮টার দিকে গাবতলী বাস টার্মিনাল থেকে হানিফ পরিবহন নামের যাত্রীবাহী বাস পঞ্চগড়ের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসে। পথিমধ্যে সাভার বাসস্ট্যান্ড থেকে রাত ৯টার দিকে যাত্রীবেশে ৩ জন ডাকাত বাসে ওঠে। অনুমানিক রাত ১০টার দিকে চন্দ্রা বাসস্ট্যান্ড থেকে আরও ২ ডাকাত যাত্রীবেশে বাসে ওঠে। রাত ২টার দিকে বাসটি পীরগঞ্জ সীমানার ধাপেরহাট নামক স্থানের সন্নিকটে এলে চালকের কাছ থেকে বাসটির নিয়ন্ত্রণ নেয়ার চেষ্টা করে ডাকাত দল। এতে চালক প্রতিবাদ করলে ডাকাত দল উপর্যুপরি চালককে ছুরিকাঘাত করে বাসটির নিয়ন্ত্রণ নেয়।অপরাপর ডাকাতরা দেশীয় অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে যাত্রীদের নিকট থেকে ১৪ থেকে ১৫টি মোবাইল ফোন ও ৫০ হতে ৬০ হাজার নগদ টাকা ছিনিয়ে নেয়। এ সময় বাধা দিলে যাত্রী লিটন ইসলামের দুই হাতে ছুরিকাঘাত করা হয়। বাসটি মহাসড়কের বড়দরগাহ ভাবনা ফিলিং স্টেশনে এসে উল্টো পথে আবারও ঢাকামুখী চলতে থাকে। রাত সাড়ে ৩টার দিকে পলাশবাড়ী-পীরগঞ্জ সীমানার সন্নিকটে চকশোলাগাড়ি বিটিসি মোড়ে ডাকাত দল বাস থামিয়ে নির্বিঘ্নে চলে যায়। এ সময় গুরুতর আহত চালক ও যাত্রীকে পলাশবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করলে কর্তব্যরত চিকিৎসক চালক মুনজুর হোসেনকে মৃত ঘোষণা করেন। খবর পেয়ে পীরগঞ্জ থানা পুলিশ চালকের লাশসহ, আহত যাত্রী ও কোচটি পীরগঞ্জ থানায় নিয়ে আসে। এ প্রসঙ্গে সহকারী পুলিশ সুপার (ডি সার্কেল) কামরুজ্জামান জানান, নৈশকোচের সুপারভাইজার পইমুল ইসলাম বাদী হয়ে থানায় মামলা রুজু করেছে। ডাকাতদের শনাক্ত ও গ্রেপ্তারে পুলিশি অভিযান চলছে।

ডায়ালসিলেট এম/

0Shares