লাখাইয়ে নৌকায় গৃহবধূকে গণধর্ষণের ঘটনায় দুই লম্পট গ্রেফতার

প্রকাশিত: ৮:২৫ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২, ২০২১

লাখাইয়ে নৌকায় গৃহবধূকে গণধর্ষণের ঘটনায় দুই লম্পট গ্রেফতার

ডায়ালসিলেট ডেস্ক::হবিগঞ্জের লাখাই উপজেলার টিক্কা হাওরে নববধূকে নিয়ে ঘুরতে গিয়ে দুর্বৃত্তদের হাতে ধর্ষণের শিকার হওয়ার ঘটনায় ৬দিন পর মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এ ঘটনায় র‌্যাব-পুলিশের যৌথ অভিযানে দুইজনকে আটক করা হয়েছে।
বৃহস্পতিবার ভিকটিমের স্বামী রাকিব আহমেদ বাদী হয়ে ৮ জনের বিরুদ্ধে হবিগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুণ্যনাল-২ এ মামলা দায়ের করেন। আদালত মামলাটি গ্রহণ করে ২৪ঘণ্টার মধ্যেই এফআইআর এর নির্দেশ প্রদান করেছেন।
বাদী মামলায় অভিযোগ করেন গত এক মাস পূর্বে তিনি তার গ্রামের এক তরুণীকে বিয়ে করেন। বিয়ের পর গত ২৫ আগস্ট স্ত্রীসহবন্ধুকে নিয়ে উপজেলার টিক্কা হাওরে নৌকা নিয়ে আনন্দ-ভ্রমণ করতে যান।
একপর্যায়ে মধ্য হাওরে যাওয়ার পর একই গ্রাম মোড়াকরি গ্রামের মুছা মিয়ার নেতৃত্বে ৮ জন যুবক তাদের নৌকাকে গতিরোধ করে নির্জনস্থানে নিয়ে যায়। সেখানে হাওরের সুইটগেট নামকস্থানে নিয়ে স্বামী ও বন্ধুকে রশিদিয়ে বেধে তার স্ত্রীকে গণধর্ষন করে ভিডিও চিত্র ধারন করে
ভিডিও চিত্র ধারনের পর হুমকি দিয়ে বলা হয় যদি বিষয়টি কাউকে জানানো হবে কিংবা আইনশৃংখলা বাহিনীকে জানানো হয়, তাহলে ইন্টারনেটে ছেড়ে দেয়া হবে। বাদী আরও অভিযোগ করেন তাদের হুমকিতে লোকলজ্জার ভয়ে তিনি এতদিন বিষয়টি গোপন রাখেন।
গত বুধবার তার স্ত্রীর শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটলে তিনি হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন।
বাদী রাকিব আহমেদ অভিযোগে আরো বলেন, ঘটনার পর ধর্ষনের ধারনকৃত ভিডিও ইন্টারনেটে ছেড়ে দেয়ার হুমকি দিয়ে তার নিকট ৯ লাখ টাকা চাদা দাবী করেন আসামীরা।
অবশেষে তিনি নিরুপায় হয়ে বৃহস্পতিবার (২-সেপ্টেম্বর) হবিগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ মামলা দায়ের করেন, বিচারক জিয়া উদ্দিন মাহমুদ মামলটি গ্রহণ করে আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে মামলা রেকর্ড করার জন্য।
লাখাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে নির্দেশ প্রদান করেছেন লাখাই থানার ওসি তদন্ত মহিউদ্দিন সুমন জানান, ঘটনার সাথে জড়িত দুইজনকে র‌্যাব-পুলিশের যৌথ অভিযানে আটক করা হয়েছে তাদেরকে থানায় জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে অন্যান্যদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

ডায়ালসিলেট এম/

0Shares