খাবার দিতে দেরি হওয়ায় রেস্তোরাঁর মালিককে হত্যা

প্রকাশিত: ১১:০০ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২, ২০২১

খাবার দিতে দেরি হওয়ায় রেস্তোরাঁর মালিককে হত্যা

ডায়ালসিলেট ডেস্ক :: ভারতের উত্তরপ্রদেশের গ্রেটার নয়ডায় খাবার দিতে দেরি হওয়ায় সুনীল নামে এক রেস্তোরাঁর মালিককে গুলি করে হত্যা করার অভিযোগ উঠেছে এক ডেলিভারি বয়ের বিরুদ্ধে। ইতোমধ্যে এ ঘটনায় তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, মঙ্গলবার মধ্যরাতে সুনীলের রেস্তোরাঁয় আসেন ওই ডেলিভারি বয়। সে খাবার অর্ডার দিলে, খাবার তৈরিতে সামান্য সময় লাগবে বলে তাকে জানানো হয়। তবে সে অপেক্ষা না করেই রেস্তোরাঁর কর্মীদের সাথে বিবাদে জড়ান। একপর্যায়ে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। পরে সুনীল সামনে এসে বিবাদের বিষয় জানাতে চাইলে হঠাৎ তার বুকে গুলি চালিয়ে দেয় ওই ডেলিভারি বয়। এতে মুহূর্তে সেখানে লুটিয়ে পড়েন সুনীল।

এ ঘটনায় স্থানীয় বাসিন্দা জানিয়েছেন, রেস্তোরাঁর এক কর্মীর থেকে সুনীলের আহত হওয়ার খবর পান। এরপরেই তিনি ঘটনাস্থলে পৌঁছে দেখেন সুনীল তখনও বেঁচে রয়েছেন। পরে সুনীলকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যান। কিন্তু শেষরক্ষা হয়নি।

এদিকে অবস্থা বেগতিক দেখে ওই ডেলিভারি বয় ঘটনাস্থল থেকে দ্রুত পালিয়ে যায় বলেও জানায় পুলিশ।

পুলিশ আরও জানায় এ ঘটনায় ওই এলাকায় চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে। এলাকায় সিসিটিভি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এছাড়া পুলিশ কমিশনার এ ঘটনায় জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতারের নির্দেশ দিয়েছেন। এরপরই তল্লাশি অভিযান চালিয়ে তিনজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (বৃহত্তর নয়ডা) বিশাল পাণ্ডে বলেন, অভিযানে যখন আমরা অভিযুক্তদের ধাওয়া দিয়েছিলাম, তখন তারা পুলিশের টিমের ওপর গুলি চালায়। গুলি বিনিময়ে তাদের মধ্যে একজন আহত হয়, যাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

তিনি আরও জানায়, তাদের গ্রেফতারের পর জিজ্ঞাসাবাদের সময় তারা পুলিশকে জানায় যে মঙ্গলবার রেস্তোরাঁর কর্মীদের সাথে উত্তপ্ত তর্কে জড়িয়ে পড়েন তারা। বিষয়টি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যেতে দেখে সুনীল তার কর্মীদের সমর্থনে এগিয়ে আসেন। কিন্তু তাদের একজন তার বন্দুক বের করে এবং সুনীলকে গুলি করে, যার ফলে তার মৃত্যু হয়।

ডায়ালসিলেট/এম/এ/

0Shares