আফগানিস্তানে দূতাবাস খোলা রাখবে চীন, দেবে সহায়তাও

প্রকাশিত: ১১:৫৬ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৩, ২০২১

আফগানিস্তানে দূতাবাস খোলা রাখবে চীন, দেবে সহায়তাও

ডায়ালসিলেট ডেস্ক :: যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ আফগানিস্তানে দূতাবাস খোলা রাখার প্রতিশ্রুতির কথা জানিয়েছে চীন। একই সঙ্গে দেশটি আফগানিস্তানকে মানবিক সহায়তা দিয়ে যাবে। তালেবানের মুখপাত্র সোহাইল শাহীন এ কথা জানান। খবর আলজাজিরার।

সোহাইল শাহীন টুইটারে লেখেন, তালেবানের শীর্ষ নেতা আব্দুস সালাম হানাফি চীনের উপপররাষ্ট্রমন্ত্রী উ জিয়াংহাওয়ের সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলেছেন। উভয়পক্ষের মধ্যে বর্তমান পরিস্থিতি এবং ভবিষ্যৎ সম্পর্ক নিয়ে কথা হয়েছে।

‘চীনের উপপরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, তারা কাবুলে তাদের দূতাবাস খোলা রাখবেন এবং অতীতের তুলনায় দুই দেশের মধ্যে সম্পর্ক আরও উন্নত হবে। আফগানিস্তান এ অঞ্চলের নিরাপত্তা এবং উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে’, যোগ করেন সোহাইল।

চীনও একটি বিবৃতি দিয়েছে আফগানিস্তান নিয়ে। সেখানে বলা হয়, এ প্রতিশ্রুতি আফগানিস্তানের সঙ্গে চীনের সম্পর্ক ‘নিশ্চিত করে’। দেশ পুনর্গঠনে আফগানদের মঙ্গল কামনা করা হয় বিবৃতিতে।

এদিকে কাবুলে চীনের দূতাবাসের ওয়েবসাইটে গিয়ে দেখা যায়, সেখানে সাময়িকভাবে কনস্যুলার সেবা বাতিল সংক্রান্ত একটি নোটিশ দেওয়া হয়েছে।

এতে বলা হয়, ১০ আগস্ট থেকে আফগানিস্তানে থাকা চীনের দূতাবাস সাময়িকভাবে কনস্যুলার সেবা দেওয়া স্থগিত করেছে। এখন থেকে সাময়িকভাবে পাকিস্তানে থাকা চীনা দূতাবাস আফগানিস্তানের চীনা দূতাবাসের কনস্যুলার পরিষেবার দায়িত্ব নেবে।

১৫ আগস্ট কাবুলের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার পর থেকে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ আফগানিস্তানে নিজেদের দূতাবাসের কার্যক্রম স্থগিত করে। ফিরিয়ে নিয়ে যায় দূতাবাসের কর্মীদের। এমন পরিস্থিতিতে দীর্ঘ ২০ বছর পর ফের কাবুলে সরকার গঠন করতে যাচ্ছে তালেবান।

ডায়ালসিলেট/এম/এ/

0Shares