ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় মানবজমিন প্রধান সম্পাদকসহ ৩১ জনকে অব্যাহতি

প্রকাশিত: ৬:১৮ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৭, ২০২১

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় মানবজমিন প্রধান সম্পাদকসহ ৩১ জনকে অব্যাহতি

ডায়ালসিলেট ডেস্ক::মাগুরা-১ আসনের সংসদ সদস্য সাইফুজ্জামান শিখরের দায়ের করা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় দৈনিক মানবজমিন এর প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরীসহ ৩১ জনকে অব্যাহতি দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক আসসামছ জগলুল হোসেনের আদালত পুলিশের দেয়া চার্জশিট আমলে নিয়ে এ আদেশ দেন। এই মামলায় একমাত্র আসামি ফটো সাংবাদিক শফিকুল ইসলাম কাজলের বিরুদ্ধে চার্জশিট গ্রহণ করে চার্জ শুনানির তারিখ ২০শে অক্টোবর ধার্য করা হয়েছে।

অব্যাহতিপ্রাপ্তদের মধ্যে মানবজমিন এর স্টাফ রিপোর্টার আল-আমিনও রয়েছেন। এছাড়া বাকি ২৯ জন ফেসবুক ব্যবহারকারী হলেন, প্রিন্স ফাহিম, আরিফুল ইসলাম আরিফ, ফরহাদ খান, জুয়েল আহমেদ, মোহাম্মাদ মোসলেম, মো. মিজানুর রহমান, মোর্শেদ আলম, কাকন আবু হানিফ, মো. রুবেল, আয়েশা আমান, মো. শামিম আক্তার, মো. সাত্তার মৃধা, মো. তৌফিক, মিলি হাসান, হাবিব আদনান, ঋষি কান্ত, মো. সোহেল হোসেন, ছালেহ আহমেদ, জসিম উদ্দিন জসিম, মো. খাইরুল ইসলাম, হেদায়েতুল ইসলাম, মো. মাহফুজ আহমেদ, এম এ মামুন, মো. হেলাল, সেলিম চৌধুরী, ইস্পাত মোহাম্মাদ, বেলায়েত হোসেন, মারুফ রাজু ও মকটেল হোসেন মুক্তি।

মাগুরা-১ আসনের এমপি সাইফুজ্জামান শিখর গত বছরের ৯ই মার্চ ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ২৫/২৬/২৯/৩১ ধারায় মামলাটি করেন। নরসিংদী জেলা যুব মহিলা লীগের বহিষ্কৃত সাধারণ সম্পাদক শামীমা নূর পাপিয়াকে নিয়ে করা একটি সংবাদ প্রকাশের পর ওই মামলাটি করেন এমপি শিখর। তবে প্রকাশিত সংবাদে তার নাম ছিল না।

শেরেবাংলানগর থানায় করা মামলায় গত ৮ই এপ্রিল অভিযোগপত্র দেন পুলিশের গোয়েন্দা শাখার উপপরিদর্শক ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ রাসেল মোল্লা। অভিযোগপত্রে ফটো সাংবাদিক কাজলকে আসামি করা হয়। বাকি ৩১ জনকে অব্যাহতি দেওয়ার সুপারিশ করা হয়।মামলার আসামি ফটো সাংবাদিক কাজল জামিনে রয়েছেন।

ডায়ালসিলেটেএম/
0Shares