ইসরায়েলের কারাগার থেকে সুড়ঙ্গ খুঁড়ে পালানোর সময় ২জন ফিলিস্তিনি আটক

প্রকাশিত: ৩:৩৭ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১১, ২০২১

ইসরায়েলের কারাগার থেকে সুড়ঙ্গ খুঁড়ে পালানোর সময় ২জন ফিলিস্তিনি আটক

ডায়ালসিলেট ডেস্ক ::  ইসরায়েলের জেনিন শহরের কারাগার থেকে সুড়ঙ্গ খুঁড়ে পালানোর সময় বন্দির থাকা ছয় ফিলিস্তিনির মধ্যে দুজনকে আটক করা হয়েছে। ইসরায়েলের পুলিশ এতথ্য জানিয়েছে। খবর বিবিসির।

স্থানীয় সময় শুক্রবার নাজরাথ শহরের কাছ থেকে তাদের আটক করা হয়। আটক ব্যক্তিরা হলেন-মাহমুদ আরাদেহ ও ইয়াকুব কাদেরি। তারা ফিলিস্তিনের ইসলামী প্রতিরোধ আন্দোলন ‘ইসলামি জিহাদ’র সদস্য।

গত দুই দশকের মধ্যে এই প্রথম ইসরায়েলের কোনো কারাগার থেকে ফিলিস্তিনি বন্দিদের পালানোর মতো বড় ঘটনা ঘটল। এটিকে কারাগারের নিরাপত্তাব্যবস্থার ব্যর্থতা বলছে ইসরায়েলের গণমাধ্যম। এমনকি যে সুড়ঙ্গ ব্যবহার করে বন্দিরা পালিয়েছেন, সেটির কাছের একটি পর্যবেক্ষণ টাওয়ারে থাকা নিরাপত্তারক্ষী ঘুমিয়ে পড়েছিলেন বলে শোনা যাচ্ছে।

এদিকে, নিরাপত্তার স্বার্থে ‘সুরক্ষিত’ এ কারাগারে থাকা ৩২০ জন বন্দির মধ্যে ৯০ জন সাজাপ্রাপ্ত বন্দিকে সরিয়ে নিয়েছে কারা কর্তৃপক্ষ।

ইসরায়েলি নিরাপত্তা বাহিনী জানিয়েছে, পলাতক ছয় বন্দির মধ্যে চারজন যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্ত। তাদের মধ্যে একজন জাকারিয়া জুবায়েদি (৪৬)। তিনি ফাতাহ আন্দোলনের শীর্ষ নেতা। বাকি পাঁচজন ফিলিস্তিনের ‘ইসলামী জিহাদ’র সদস্য। তারা প্রত্যেকেই ইসরায়েলের বিরুদ্ধে যুদ্ধে ‘দুর্ধর্ষ’ বলে দাবি ইসরায়েলি বাহিনীর।

প্রসঙ্গত, ইসরায়েলের একটি কারাগার থেকে সম্প্রতি ৬ ফিলিস্তিনি বন্দি পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়েছেন। যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত ব্যক্তিরা আন্ডারগ্রাউন্ড একটি টানেলের মধ্য দিয়ে পালিয়ে যান। কঠোর নিরাপত্তাবেষ্টিত ইসরায়েলি কারাগার থেকে পালিয়ে যাওয়া ছয়জনের মধ্যে একজন ফাতাহ আন্দোলনের শহীদ ব্রিগেডের সদস্য। আর বাকি পাঁচজন হলেন ফিলিস্তিনের ইসলামি জিহাদ আন্দোলনের সদস্য।

0Shares

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ