অ্যাসেজ বাতিলের দাবি জানালেন পিটারসেন

প্রকাশিত: ৫:১৫ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২১

অ্যাসেজ বাতিলের দাবি জানালেন পিটারসেন

স্পোর্টস ডেস্ক;:করোনাভাইরাস নিয়ে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল যে কতোটা সচেতন, তার নমুনা দেখা গিয়েছে বাংলাদেশ সফরে। সংক্রমণ ঠেকাতে প্রতিপক্ষের খেলোয়াড়দের সঙ্গে সৌজন্যমূলক হাত পর্যন্ত মেলায়নি অজিরা। এমনকি গ্যালারিতে যাওয়া বল দ্বিতীয়বার ব্যবহারেও অসম্মতি ছিল তাদের। অস্ট্রেলিয়ায় গেলে সেখানেও মানতে হয় বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিনসহ নানান কঠোর নিয়ম। এমন পরিস্থিতিতে ইংল্যান্ডের ক্রিকেটাররা অস্ট্রেলিয়ায় অ্যাসেজ খেলতে যাবেন কি না, তা নিয়ে জেগেছে শঙ্কা। সিরিজটি বাতিলের দাবি জানালেন ইংল্যান্ডের কিংবদন্তি ক্রিকেটার কেভিন পিটারসেন।
পিটারসেন মনে করেন, অস্ট্রেলিয়ার কঠোর করোনাবিধি মেনে অ্যাসেজ খেলতে যাওয়ার কোনো মানে নেই। পরিবারসহ অস্ট্রেলিয়া সফরে যেতে চায় ইংল্যান্ডের ক্রিকেটাররা। অনেক ইংলিশ ক্রিকেটার এ নিয়ে আবেদন জানালেও এখনও কোনো সিদ্ধান্ত আসেনি ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার (সিএ) তরফ থেকে।পিটারসেন নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে লিখেছেন, ‘এই শীতে অ্যাসেজে যাওয়ার কোনো মানে নেই। অস্ট্রেলিয়ার হাস্যকর কোয়ারেন্টিন নিয়ম বাতিল করা হলে এবং পরিবারসহ ক্রিকেটাররা সফরে যেতে পারলে ভিন্ন কথা। খেলোয়াড়েরা বায়ো-বাবলে থেকে ক্লান্ত হয়ে পড়েছে।’
আগামী ৮ই ডিসেম্বর থেকে শুরু হওয়ার কথা পাঁচ ম্যাচের অ্যাসেজ সিরিজ। চলবে আগামী ১৮ই জানুয়ারি পর্যন্ত। কিন্তু সে সিরিজ হবে কি না, তা নিয়ে সংশয় রয়েছে। জোর গুঞ্জন, ইংল্যান্ডের অনেক সিনিয়র ক্রিকেটাররাই বয়কট করে দিতে পারেন এবারের অ্যাসেজ। জটিলতা কাটাতে দেশের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন ইতিমধ্যে কথা বলেছেন ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে। দাবি জানিয়েছেন পরিবারসহ সফরের সুযোগের। তবে এখনও অজিদের ক্রিকেট বোর্ডের কাছ থেকে পাওয়া যায়নি কোনো সদুত্তর।
এদিকে অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসনও নিজেদের অবস্থানে অটল। জানিয়ে দিয়েছেন, অ্যাসেজ খেলতে আসলে ইংল্যান্ড ক্রিকেট দল পাবে না কোনো বিশেষ ছাড়। দুই দেশের দ্বিমুখী অবস্থানে ঐতিহাসিক সিরিজটি মাঠে গড়ানোর সম্ভাবনা ক্ষীণ হচ্ছে।

0Shares