তেজগাঁওয়ে ভবনে বিস্ফোরণ, দুই শিক্ষার্থী দগ্ধ

প্রকাশিত: ১১:০০ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ২, ২০২১

তেজগাঁওয়ে ভবনে বিস্ফোরণ, দুই শিক্ষার্থী দগ্ধ

ডায়ালসিলেট ডেস্ক;:রাজধানীর তেজগাঁও থানাধীন তেজতুরী বাজার এলাকার একটি ছয়তলা ভবনের তিনতলায় বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় দুই শিক্ষার্থী দগ্ধ হয়েছেন। দগ্ধ দুইজন হলেন- ইয়াসিন তালুকদার (৩১) ও জিতু (২৮)। শুক্রবার রাতের দিকে এই দুর্ঘটনা ঘটে। দগ্ধ অবস্থায় তাদের দুজনকে উদ্ধার করে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারির ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়েছে।
তেজগাঁও থানার পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) আব্দুল মান্নান জানান, রাত ৯টার দিকে ২৭/এ পূর্ব তেজতুরী বাজার ওই ছয়তলা ভবনের তৃতীয় তলায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখতে পাই দুই জন দগ্ধ হয়েছে দগ্ধ অবস্থায় তাদের দুজনকে শেখ হাসিনার বার্নে পাঠানো হয়। এই ঘটনাটির বিস্তারিত জানার চেষ্টা চলছে।
তিনি আরো জানান, আমরা প্রাথমিকভাবে দুই শিক্ষার্থীর নাম জানতে পেরেছি। দুজন হলেন- ইয়াসিন তালুকদার, তার গ্রামের বাড়ি চাঁদপুরে ও অপরজন জিতু (২৮) তার পরিচয় এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি।
শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের আবাসিক সার্জন এস এম আইয়ুব হুসাইন জানান, তেজগাঁও তেজতুরী বাজার এলাকা থেকে দুইজন দগ্ধ হয়ে এসেছে।

তাদের দুইজনকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র (আইসিইউতে) ভর্তি করা হয়েছে। দুই জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক, ইয়াসিন তালুকদারের শরীরে ৫০ শতাংশ দগ্ধ হয়েছে ও জিতু শরীরে ৬৫ শতাংশ দগ্ধ হয়েছে। তাদের দুজনেরই শ্বাসনালী দগ্ধ হয়েছে।
ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ (পরিদর্শক) মোঃ বাচ্চু মিয়া বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, তেজগাঁও তেজতুরী বাজার জনতা ফার্মেসী সংলগ্ন ছয়তলা একটি ভবনের তিন তলায় একটি ভবনে কয়েকজন মিলে ওই মেস করে থাকতো। রাত ৯ টার দিকে তাদের রুমে হঠাৎ গ্যাস সিলিন্ডার থেকে বিস্ফোরণ ঘটে। এতে ২জন দগ্ধ হয়। ইয়াসিনের শরীরের ৫০ শতাংশ ও জিতুর শরীরের ৬৫ শতাংশ দগ্ধ হয়েছে। তাদের শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়েছে।

এদিকে রাতেই ঘটনাস্থল পরিদর্শনে গিয়ে সিটিটিসির উপ-পুলিশ কমিশনার আব্দুল মান্নান জানান, তেজতুরী বাজার এলাকার একটি বাসায় ঘটে যাওয়া বিস্ফোরণে বিস্ফোরক দ্রব্য জাতীয় কিছুর সন্ধান পাওয়া যায়নি। বিস্ফোরণের ঘটনাটি অন্য কোনো কারণে হতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে। আহতদের সঙ্গে কথা বলে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানা যাবে।

ডায়ালসিলেট এম/

0Shares