শাস্তির রায় শুনে কাঠগড়া থেকে দৌড়ে পালিয়ে গেলেন আসামি

প্রকাশিত: ৪:০৬ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৫, ২০২১

শাস্তির রায় শুনে কাঠগড়া থেকে দৌড়ে পালিয়ে গেলেন আসামি

ডায়ালসিলেট ডেস্ক::একটি চেক প্রতারণা মামলার রায় শুনতে চট্টগ্রাম প্রথম যুগ্ম জেলা জজ আদালতে হাজির হয়েছিলেন নোয়াখালী জেলার মোহাম্মদ খাইরুল মাঝি। যথারীতি মামলার এতদিন কার্যক্রম শেষে বিচারক রায় পড়ে শোনান। রায়ে খাইরুল মাঝিকে চেকের ২২ লাখ টাকা পরিশোধের পাশাপাশি এক বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেন। আর এই রায় শোনা মাত্রই কাঠগড়া থেকে দৌড়ে পালিয়ে যান নোয়াখালী জেলার এই বাসিন্দা।
সোমবার চট্টগ্রাম প্রথম যুগ্ম জেলা জজ মোহাম্মদ খাইরুল আমীনের আদালতে এ ঘটনা ঘটে। পালিয়া যাওয়া আসামি হাসেম মাঝি (৬০) নোয়াখালীর সদর উপজেলার মৃত নাছির মিয়ার পুত্র।
কোর্ট সূত্রে জানা যায়, চেক প্রত্যাখ্যানের মামলায় বিচারক আসামি হাসেম মাঝিকে বিনাশ্রম কারাদণ্ড ও চেকের ২২ লাখ টাকা পরিশোধ করতে বলেন। পরে কাঠগড়া থেকে আসামীকে কারাগারে নিয়ে যাওয়ার জন্য পুলিশ সদস্যদের ডাকা হলেও কাউকে পাওয়া যায়নি। এ সুযোগে আসামি দৌড়ে কাঠগড়া থেকে বের হয়ে পালিয়ে যায়।
আদালতের বেঞ্চ সহকারী সাইফুদ্দিন পারভেজ বলেন, রায় ঘোষণার সময় আসামি কাঠগড়ায় ছিলেন। পরে আসামি কাঠগড়া থেকে দৌড়ে পালিয়ে যান। এ সময় আদালতে কোনো পুলিশ সদস্য ছিলেন না। বিচারক তাৎক্ষণিকভাবে ডেকেও কোনো পুলিশ সদস্যকে পাননি।
এই বিষয়ে জেলা কোর্ট পরিদর্শক মো. হুমায়ুন কবির বলেন,
পুলিশ সদস্যরা তো কোর্টে থাকেন। বিষয়টি আমিরা খতিয়ে দেখছি। কারো বিরুদ্ধে দায়িত্বে অবহেলার প্রমাণ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ডায়ালসিলেট এম/

0Shares