প্রধান শিক্ষককের বিরুদ্ধে শিক্ষিকা ধর্ষণের অভিযোগ!

প্রকাশিত: ৩:৪৩ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৬, ২০২১

প্রধান শিক্ষককের বিরুদ্ধে শিক্ষিকা ধর্ষণের অভিযোগ!

ডায়ালসিলেট ডেস্ক::গাজীপুর সদর উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নের সৃজনশীল স্কুল এন্ড কলেজের পরিচালক ও প্রধান শিক্ষক সাদেকুল ইসলাম সেলিম বিরুদ্ধে সহকারী শিক্ষিকা কে জোর পূর্বক ধর্ষণ এবং তার ভিডিও ধারণ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে একাধিকবার ধর্ষণ করে আসছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

এ ঘটনায় ভিকটিম বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে জয়দেবপুর থানায় ১ অক্টোবর একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন ( মামলা নং ১)। আসামি হলেন- ময়মনসিংহের ভালুকা থানার ডাকাতিয়া গ্রামের শামছুল হকের ছেলে সাদেকুল ইসলাম সেলিম ( ৪০ )। বর্তমানে গাজীপুর সদর উপজেলার ভাওয়াল মির্জাপুর ইউনিয়নের সৃজনশীল স্কুল এন্ড কলেজের প্রতিষ্ঠানতা পরিচালক ও প্রধান শিক্ষক।

মামলা সূত্রে জানা যায়, গত ৬ মাস যাবত ভিকটিম সৃজনশীল স্কুল এন্ড কলেজের সহকারী শিক্ষিকা হিসাবে কর্মরত আছেন। বিবাদীর অফিস এবং ভিকটিমের কর্মস্থল একই রুম হওয়ার সুবাধে প্রায় সময়ই উত্যক্ত এবং কু-প্রস্তাব দিয়া আসছিল। বিবাদীর প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় গত ২৭/০৬/২১ তারিখ বেলা ৩ টার সময় শিক্ষকরা স্কুল থেকে চলে যাওয়ার পর বাদীর কর্মস্থলে সৃজনশীল স্কুল এন্ড কলেজ এর অফিস রুম শিক্ষার্থীদের এসাইনমেন্ট তৈরি করা অবস্থায় বিবাদী পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে অফিস কক্ষের দরজা বন্ধ করে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে এবং ধর্ষণের ভিডিও গোপনে ধারণ করে।

পরবর্তীতে গত ১২/০৭/২১ তারিখ কর্মস্থল সৃজনশীল স্কুল এন্ড কলেজের অফিস রুমে থাকা অবস্থায় বিবাদীর এসে বলে তার কথায় রাজি না হলে ইতিপূর্বের ধর্ষণের ভিডিও ইটারনেটে ভাইরাল করে দেওয়ার ভয় ভীতি দেখিয়ে পূণরায় জোর পূর্বক একাধিকবার ধর্ষণ করে।

এরপর হইতে বিবাদীর অবৈধ শারিরীক সম্পর্ক অব্যাহত রাখার জন্য ভিকটিম কে ধর্ষণের ভিডিও ইটারনেটে ভাইরাল সহ বিভিন্ন রকম ভয় ভীতি ও হুমকি অব্যাহত রাখে। এই ঘটনায় ভিকটিম বাদী হয়ে জয়দেবপুর থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।

জয়দেবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহাতাব উদ্দিন জানান, এ ঘটনায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে একটি ধর্ষণ মামলা হয়েছে। আসামি বর্তমানে পলাতক রয়েছে, তাকে ধরার জন্য আমাদের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

ডায়ালসিলেট এম/

0Shares