প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে গিয়ে ধর্ষণ মামলার বাদী-আসামি দুজনই কারাগারে

প্রকাশিত: ১১:২২ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ২৭, ২০২১

প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে গিয়ে ধর্ষণ মামলার বাদী-আসামি দুজনই কারাগারে

ডায়েলসিলেট ডেস্ক :: বরগুনায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল। প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে গিয়ে ধর্ষণ মামলার আসামি ও বাদীকে কারাগারে পাঠিয়েছে।

মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক হাফিজুর রহমানের আদালতে ছগিরের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা প্রত্যাহারের আবেদন করলে, মূল রহস্য বেড়িয়ে আসে। আদালতের বিচারক বিস্তারিত শুনে বাদী আকলিমা ও ছগিরকে জেল হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

কারাগারে যাওয়া আসামিরা হলেন, বরগুনা সদর উপজেলার পদ্মা গ্রামের আবদুল গনি হাওলাদারের ছেলে ছগির হোসেন (৪২) পূর্ব গুদিঘাটা গ্রামের খালেক চৌকিদারের মেয়ে আকলিমা আক্তার (৩৫)।
ঘটনার বিবরণে জানা যায়, চলতি বছরের ২৩ মার্চ আকলিমা ছগিরের সঙ্গে দেখা করতে আসে।

ছগির আকলিমাকে বলে ধর্ষণ মামলা করতে হলে ধর্ষণের আলামত দরকার এবং ছগির আকলিমাকে ধর্ষণ করে। এরপর আকলিমা থানায় গিয়ে জাহিদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা করতে গেলে পুলিশের জেরার মুখে সব ঘটনা স্বীকার করে।
এরপর পুলিশ ছগিরকে গ্রেফতার করে।

আদালতের পিপি মোস্তাফিজুর রহমান বাবুল বলেন, বাদী আকলিমা আক্তার আমার চেম্বারে এসে বলে আমরা আপোস হয়েছি। আমি মামলা চালাতে চাই না। আমরা খালাত ভাই বোন। আকলিমার কথামতো আমি আদালতে আবেদন করেছি। এর বেশি কিছু আমি জানি না।

/এম/এ/

0Shares