শেকলবন্দি যুবককে পোশাক কারখানা থেকে উদ্ধার

প্রকাশিত: ১০:০৮ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ১৬, ২০২১

শেকলবন্দি যুবককে পোশাক কারখানা থেকে উদ্ধার

ডায়ালসিলেট ডেস্ক :: ঢাকার কেরানীগঞ্জে একটি পোশাক তৈরির কারখানায় মধ্যযুগীয় কায়দায় যুবককে আটকে রেখে নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনার একটি ভিডিও বুড়িগঙ্গা টিভি নামে একটি একটি ফেসবুক পেইজে লাইভ প্রচার হলে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর নজরে আসে।

লাইভ টিভি সম্প্রচারের কিছুক্ষণের মধ্যেই র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) ১০ সিপিসি-২ সদস্যরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে শেকলবন্দি যুবককে সেখান থেকে উদ্ধার করে। উদ্ধার হওয়া যুবকের নাম মো. হাসান (২৩), সে ঢাকার নবাবপুরের লালচান মুকিম লেনের গুড্ডু মিয়ার ছেলে। তবে এ ঘটনায় পোশাক তৈরি কারখানার মালিক নির্যাতনকারী সজল মিয়া পলাতক রয়েছেন।

 

সোমবার (১৫ই নভেম্বর) রাত আটটার দিকে চুনকুটিয়া হিজলতলা জব্বার টেইলার্সের গলির সুজন মিয়ার বাড়ির দ্বিতীয় তলা থেকে ভিকটিমকে উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানা পুলিশ, ডিজিএফআই, এনএসআই, সদস্যরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

 

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, হাসান বেশ কয়েক বছর ধরে সজলের কারখানায় পোশাক তৈরির কাজ করতেন। সম্প্রতি সে বিয়ে করায় এবং একটি বাচ্চা হওয়ায় সে বর্তমানে আর এই কাজ করতে আগ্রহী নয়। এখন সে নিজে একটি দোকান দিয়ে ব্যবসা পরিচালনা করবে। এ ঘটনায় ক্ষিপ্ত হয়ে কারখানার মালিক সজল মিয়া হাসানকে বাড়ি থেকে ধরে এনে কারখানার মধ্যে শিকল দিয়ে আটকে রাখে। খবর পেয়ে হাসানের স্ত্রী ও মা তাকে ছাড়াতে এলে মালিক সজল মিয়া তাকে ছাড়াতে ৫০ হাজার টাকা মুক্তিপণ দাবি করে।

 

র‌্যাব-১০ সিপিসি-২ থেকে ঘটনায় সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ফেসবুক লাইভের ভিডিওটি দেখে তাৎক্ষণিক অভিযান পরিচালনা করে হাসানকে বন্দিদশা থেকে উদ্ধার করি। এ ঘটনায় পোশাক কারখানার মালিক সজল মিয়া পলাতক থাকায় তাকে আমরা গ্রেফতার করতে পারিনি। তবে তাকে গ্রেফতারের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

 

0Shares