৮ বছরের শিশুর গলিত লাশ উদ্ধান

প্রকাশিত: ২:৩৭ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ৩, ২০২১

৮ বছরের শিশুর গলিত লাশ উদ্ধান

 

ডায়ালসিলেট ডেস্ক :: নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলার উত্তর বাখর নগর ইউনিয়নের বাখর নগর মধ্যপাড়া গ্রামের একটি ধানক্ষেতের বীজতলা থেকে এক শিশুর গলিত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধারকৃত নিহত শিশুর নাম মো. ইয়ামিন (৮)। ইয়ামিন একই গ্রামের মালয়েশিয়া প্রবাসী জামাল মিয়ার ছেলে এবং বাখর নগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্র।

 

অপহরণের পাঁচ দিন পর আজ শুক্রবার সকালে এ লাশ উদ্ধার করা হয়। জানা যায়, গত ২৮ নভেম্বর ইউপি নির্বাচনের দিন দুপুরে ইয়ামিনকে অপহরণ করা হয়। পরে গত বুধবার (১ ডিসেম্বর) শিশুটির মা শামসুন্নাহার বাদী হয়ে রায়পুরা থানায় অপহরণের অভিযোগে একটি মামলা করেন।

ইয়ামিনের মা শামছুন্নাহার বলেন, সকালে ভোটকেন্দ্রে যাওয়ার সময় ছেলেকে বাড়িতে রেখে যাই। ভোট দিয়ে দুপুরে বাড়ি ফিরি। তারপর থেকে ইয়ামিনের খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। পরে সম্ভাব্য সকল জায়গায় খোঁজ করেও ছেলের সন্ধান পাইনি। রাতে অপরিচিত একটি নম্বর থেকে ফোন আসে। কল রিসিভ করার পর এক ব্যক্তি জানান, ইয়ামিন তাদের হেফাজতে আছে। এ সময় মুক্তিপণ হিসাবে দশ লাখ টাকা দাবি করে সে। এত টাকা দিতে পারবো না জানালে অপহরণকারী পাঁচ লাখ টাকায় ইয়ামিনকে ছেড়ে দিতে রাজি হয়। পরে বিকাশে এক লাখ টাকা পাঠাই। টাকা পাওয়ার পর অপহরণকারী ব্যক্তি তার ফোনটি বন্ধ করে ফেলে।

পরে অনেকবার মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করেছি। কিন্তু ফোন বন্ধ পাই। আজ সকালে খবর পেয়ে বাড়ির পাশের বীজতলায় দেখতে পাই একটি লাশ পড়ে আছে তার পরনের প্যান্ট দেখে নিশ্চিত হই এটা আমার ছেলে ইয়ামিন।

 

সরেজিনের গিয়ে দেখা যায়, স্থানীয় নজরুল মিয়ার ধানের বীজ তলায় একটি গলিত লাশ পড়ে থাকতে দেখা যায় । ছেলেটির হাত ও পা রশি দিয়ে বাঁধা।  পরনে ছিল একটি কালো রংয়ের হাফ-প্যান্ট। ধারণা করা হচ্ছে, রাতে কোনো প্রাণী পাশের একটি ডোবা থেকে লাশটি টেনে বীজতলায় নিয়ে আসে। পরে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেন । পরে পুলিশ এসে লাশটি উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়।

 

রায়পুরা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) জহিরুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে শিশু ইয়ামিনের গলিত লাশ একটি বীজতলা থেকে উদ্ধারের পর ময়নাতদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। অপহরণের অভিযোগে শিশুটি মা বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা করেছেন। আমরা তদন্ত সাপেক্ষে প্রকৃত দোষীদের বিরোদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করছি।

 

0Shares