কিন্তু তার সেই স্বপ্ন পূরণ হয়নি। লিবিয়ায় পুলিশের গুলিতে নিহত হয়েছেন আমিনুল।

রবিবার (২ জানুয়ারি) সেখানকার এক ব্যক্তির মাধ্যমে এ খবর পাওয়ার পর থেকে আমিনুলের বাড়িতে চলছে শোকের মাতম।

জানা গেছে, বছর খানেক আগে ইউরোপ যাওয়ার জন্য দালালের মাধ্যমে লিবিয়ায় পাড়ি জমান আমিনুল ইসলাম। তিন মাস পূর্বে ইতালির উদ্দেশে রওনা হওয়ার সময় আটক হন লিবিয়া পুলিশের হাতে। এরপর থেকে পরিবারের সাথে তার আর যোগাযোগ হয়নি।

রবিবার বিকেলে লিবিয়ায় অবস্থানরত বিয়ানীবাজার উপজেলার চারখাই ইউনিয়নের এক যুবক ফোনে জানান, আমিনুল জেল থেকে পালাতে চাইছিলেন। এসময় পুলিশের গুলিতে তিনি মারা গেছেন। নিহতের পর আমিনুলকে সেদেশেই দাফন করা হয়েছে।এদিকে, পরিবারের বড় ছেলের এমন করুণ মৃত্যুতে শোকের মাতম চলছে আমিনুলের পরিবারে। বারবার মূর্ছা যাচ্ছেন আমিনুলের মা সুফিয়া বেগম। সন্তানহারা মাকে সান্ত্বনা দেওয়ার কোনো ভাষাও জানা নেই আত্মীয়-স্বজনদের।আমিনুলের চাচাতো ভাই জিয়াউর রহমান জানান, লিবিয়া থেকে ফোনে আমাদের জানানো হয়েছে আমিনুল পুলিশের গুলিতে মারা গেছে। তবে এখন পর্যন্ত অফিসিয়ালি তার মৃত্যুর খবর পাইনি। আমরা চেষ্টা করছি লিবিয়াস্থ বাংলাদেশি দূতাবাসের মাধ্যমে নিশ্চিত হতে।