ভারতে একদিনে করোনায় আক্রান্ত ১,৭৯,৭২৩

প্রকাশিত: ৩:১০ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১০, ২০২২

ভারতে একদিনে করোনায় আক্রান্ত ১,৭৯,৭২৩

আন্তর্জাতিক ডেস্ক::ভারতে গত মে মাসের পরে একদিনে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা সর্বোচ্চে পৌঁছেছে। এ সংখ্যা এখন এক লাখ ৭৯ হাজার ৭২৩। এ অবস্থার মধ্যে আগামী মাসে উত্তরপ্রদেশ বিধানসভা নির্বাচনের কথা। কিন্তু সেখানে করোনা আক্রান্ত বৃদ্ধি পেয়েছে শতকরা ১৩০০ ভাগ। এ খবর দিয়ে অনলাইন এনডিটিভি বলছে, সব মিলে দেশটিতে মোট করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা কমপক্ষে ৩ কোটি ৫৭ লাখ। আক্রান্তদের মধ্যে ৪০৩৩ জন ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টে সংক্রমিত হয়েছেন। ওমিক্রন সংক্রমণ দেখা দিয়েছে ২৭টি রাজ্য ও ইউনিয়ন টেরিটোরিতে। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সোমবার সকালে যে আপডেট তথ্য দিয়েছে তাতে বলা হয়েছে, মোট সংক্রমণের মধ্যে শতকরা ২.০৩ ভাগ হলো এক্টিভ কেস। জাতীয় পর্যায়ে করোনা থেকে মুক্তির শতকরা হার কমে গেছে ৯৬.৬২ ভাগ। একদিনে করোনায় একটিভ কেস বৃদ্ধি পেয়েছে এক লাখ ৩৩ হাজার ৮। একদিনে শতকরা হিসেবে পজেটিভ হার ১৩.২৯। করোনাভাইরাসে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত করেছে মহারাষ্ট্রকে। সেখানে নতুন করে ৪৪ হাজার ৩৮৮ জনের শরীরে রোববার করোনা শনাক্ত হয়েছে। মারা গেছেন ১২ জন। ওই রাজ্যে মোট করোনা পজেটিভ রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৬৯ লাখ ২০ হাজার ৪৪। এক্টিভ কেস সেখানে ২ লাখ ২ হাজার ২৫৯। উত্তর প্রদেশে ২৪ ঘন্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ৭৬৯৫ জন। গত সপ্তাহের তুলনায় এই সংখ্যা ১৩ গুন বেশি। রোববার দিল্লিতে করোনা সংশ্লিষ্ট মৃত্যু হয়েছে ১৭ জনের। গত বছরের ১৬ই জুনের পরে একদিনে এটাই সবচেয়ে বেশি মৃত্যু। ওই রাজ্যে ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ২২ হাজার ৭৫১ জন। সেখানে করোনা পজেটিভের শতকরা হার ২৩.৫৩ ভাগ। এ অবস্থায় করোনা পরীক্ষা, জিনোম সিকুয়েন্সিং এবং টিকাদানের ওপর জোর দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। গত মাসে তিনি পূর্ব সতর্কতা হিসেবে করোনাভাইরাসের তৃতীয় ডোজ বা বুস্টার ডোজ টিকা নেয়ার ঘোষণা দিয়েছিলেন। সেই কর্মসূচি আজ সোমবার শুরু হয়েছে। যারা এর বৈধতার মধ্যে পড়েন তারা অ্যাপয়েন্টমেন্ট করে অথবা টিকাকেন্দ্রে গিয়ে এই ডোজ নিতে পারেন।

0Shares