ইমরান খানের বিশেষ সহকারির পদত্যাগ ঘোষণা

প্রকাশিত: ৮:০৮ অপরাহ্ণ, মার্চ ২৭, ২০২২

ইমরান খানের বিশেষ সহকারির পদত্যাগ ঘোষণা

ডায়ালসিলেট ডেস্ক::প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান যতই ‘শক্তি’ প্রদর্শন করছেন, ততই তার সামনে একের পর এক দুঃসংবাদ আসছে। অনাস্থা প্রস্তাবে তার নিজের দল পাকিস্তান তেহরিকে ইনসাফের (পিটিআই) একগাদা এমপি বিদ্রোহ করেছেন। তাদের কাছে নোটিশ পাঠানো হয়েছিল। তারা তার জবাবও দিয়েছেন। কিন্তু ভোট দানে বিরত থাকবেন না। আবার ইমরান খানকেও ভোট দেবেন না। এরই মধ্যে নতুন খবর হলো রোববার সকালে ইমরান খান যখন ‘ইতিহাস গড়ার’ ডাক দিয়েছেন, তখন শোনা গেল কেন্দ্রীয় মন্ত্রীপরিষদে ইমরানের বেলুচিস্তান পুনরেকত্রীকরণ বিষয়ক বিশেষ সহকারি পদত্যাগ করেছেন। তিনি হলেন জামুরি ওয়াতান পার্টির নেতা শাহজান বুগতি।

রোববার সকালে তিনি কেন্দ্রীয় মন্ত্রীপরিষদ থেকে পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন। এর কারণ হিসেবে তিনি নিজের প্রদেশে উন্নয়নে ঘাটতির কথা তুলে ধরেছেন। পাকিস্তান পিপলস পার্টির (পিপিপি) চেয়ারম্যান বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারিকে পাশে নিয়ে রাজধানী ইসলামাবাদে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এই ঘোষণা দেন। এর আগে বুগতির বাসভবনে তার সঙ্গে সাক্ষাত করেন বিলাওয়াল। সেখানে দেশের বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে তারা আলোচনা করেন।
গত বছর জুলাইয়ে বিশেষ সহকারি হিসেবে বুগতিকে নিয়োগ দিয়েছিলেন ইমরান খান। এর মধ্য দিয়ে তিনি বেলুচিস্তানের উপজাতিদের শান্তি ও সমৃদ্ধির পথে আনার জন্য আলোচনার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। উপজাতিদের সরকারের সঙ্গে নিয়ে আসতে দায়িত্ব দেয়া হয়েছিল বুগতিকে। প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান যখন অনাস্থা প্রস্তাব সহ নানাবিধ চাপে তখনই পদত্যাগ করে বসলেন বুগতি। তিনি সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, বেলুচিস্তানের সমস্যা সমাধানে ব্যর্থ হয়েছে সরকার। তার ভাষায়- কেন্দ্রীয় সরকার আমাদেরকে আশা দেখিয়েছিল। কিন্তু কোনো উন্নতি হয়নি। উল্টো মানুষজন হতাশ হয়েছে। তাই আমরা পাকিস্তান ডেমোক্রেটিক মুভমেন্টের পাশে থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আমরা এক্ষেত্রে যতটা পারি করবো।
এ সময় নিজের হতাশার কথা তুলে ধরেন শাহজান বুগতি। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী প্রথম ক্ষমতায় এলেন যখন তিনি প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন দক্ষিণ বেলুচিস্তান ও অনুন্নত এলাকাগুলোর প্রতি দৃষ্টি দেবেন। কিন্তু তিনি তা করতে ব্যর্থ হয়েছেন। নিজেদের অবজ্ঞার জন্য পিটিআই সরকারের সময়ে তাদের দলেই বিদ্রোহ বেড়েছে। দেয়ালে নিজের মাথা ঠোকা ছাড়া সবকিছুই করার চেষ্টা করেছি আমি। ইমরান খান বলেন সবাই দুর্নীতিবাজ। কিন্তু জনগণের সামনে এ জন্য তথ্যপ্রমাণ দিন, তাহলে জনগণই সিদ্ধান্ত নেবে কে দুর্নীতিবাজ। কিন্তু তিনি আমাদেরকে ভুল কথাই শুনিয়ে যাচ্ছেন। সরকার দক্ষিণ পাঞ্জাবের জন্য একটি উন্নয়ন প্যাকেজ ঘোষণা করেছে। কিন্তু উপেক্ষা করা হয়েছে বেলুচিস্তানকে।
ওদিকে শাহজান বুগতির পদত্যাগকে একটি সাহসী সিদ্ধান্ত বলে অভিহিত করেছেন বিলাওয়াল ভুট্টো। তিনি বলেন, জাতীয় পরিষদের এই সদস্য গত তিনটি বছর সরকারের সঙ্গে কাজ করার চেষ্টা করেছেন। কিন্তু সরকার জনগণ ও বিরোধীদের সঙ্গে শুধুই প্রতারণা করেছে। প্রধানমন্ত্রী ইমরান তার মিত্রদের শুধুই ব্যবহার করেছেন। শাহজান বুগতিকে ধন্যবাদ জানিয়ে বিলাওয়াল বলেন, এই জাতীয় পরিষদ সদস্য দেশের মানুষের কাছে একটি বার্তা দিয়েছেন। জনগণ আমাদের দিকে তাকিয়ে থাকেন সমস্যা সমাধানের জন্য। বেলুচিস্তান ইস্যু এক জটিল বিষয়। ওই প্রদেশের মানুষের সঙ্গে ন্যায়বিচার করেনি পাকিস্তানের ইতিহাস।

ডায়ালসিলেট এম/

0Shares