‘স্মার্ট বাংলাদেশ একটি সামাজিক আন্দোলন’

প্রকাশিত: ৪:০৯ অপরাহ্ণ, জুন ৬, ২০২৩

‘স্মার্ট বাংলাদেশ একটি সামাজিক আন্দোলন’

ডায়াল সিলেট ডেস্ক :  স্মার্ট বাংলাদেশ একটি সামাজিক আন্দোলন, এই আন্দোলনের নেতৃত্ব দেবে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ। স্মার্ট বাংলাদেশের জন্য দরকার স্মার্ট সরকার। আর সরকার যেহেতু দলীয়। তাই দরকার স্মার্ট দল। সরকারকে স্মার্ট করতে হলে আগে দলকে স্মার্ট করতে হবে। সে লক্ষ্যে দেশের ৭৮ টি সাংগঠনিক জেলা আওয়ামী লীগ অফিসকে স্মার্ট করা হচ্ছে।’

আওয়ামী লীগের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির প্রধান সমন্বয়ক ও মন্ত্রীপরিষদের সাবেক সচিব কবির বিন আনোয়ার মৌলভীবাজার জেলা আ. লীগ অফিসে স্মার্ট কর্ণার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন।

মঙ্গলবার (৬ জুন) সকাল ১১টায় মৌলভীবাজার জেলা আওয়ামী লীগের চৌমুনাস্থ অফিসে ডিজিটাল স্মার্ট কর্নার উদ্বোধন করা হয়।

স্মার্ট কর্ণার উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে কবির বিন আনোয়ার বলেন,‘ইতোমধ্যে ১৮টি জেলায় স্মার্ট কর্ণার চালু করা হয়েছে। আশা করছি আগামী জুলাইের মধ্যে অবশিষ্ট জেলা গুলিতে স্মার্ট কর্ণার চালু করা হবে। এরপর দেশের সব উপজেলায় এই স্মার্ট কর্ণার চালু করা হবে।’

তিনি আরও বলেন, আগামী সংসদ নির্বাচনের সকল কর্মকাণ্ডকে একটি কর্মসূচি আকারে নাম দেওয়া হয়েছে ‘রোড টু স্মার্ট বাংলাদেশ’। আর এই কর্মসূচির আওতায় রয়েছে অনেক গুলো উদ্যোগ। তার একটি ‘স্মার্ট কার্যালয়’। সেই স্মার্ট কার্যালয় উদ্যোগের অংশ হিসেবে প্রতিটি সাংগঠনিক জেলার অফিসে ‘স্মার্ট কর্নার’ স্থাপন করা হচ্ছে। স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে, দলকে আরও স্মার্ট আরও তারুণ্য বান্ধব করতে এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বার্তা দেশের প্রতিটি ঘরে পৌঁছে দিতেই এই উদ্যোগ।’

এখন থেকে মৌলভীবাজার জেলা আওয়ামী লীগের অফিসে স্থাপিত ডিজিটাল সুবিধা সমৃদ্ধ স্মার্ট কর্ণার থেকে সরকারের উন্নয়ন, সাফল্য ও সম্ভাবনার চিত্র তুলে ধরে প্রচার-প্রচারণা চালানো হবে। পাশাপাশি গুজবের বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়া সম্ভব হবে বলে তিনি জানান।

এসময় জেলা আওয়ামী লীগের অফিসে ২জন করে পুরুষ ও নারী ক্যাম্পেইনারকে নিয়োগ প্রদান করা হয়।

পরে মৌলভীবাজার পৌরসভা হলরুমে জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়রসহ সভাপতি আজমল হোসেনের সভাপতিত্বে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মিছবাহুর রহমানের সঞ্চালনায় মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এসময় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন জেলা, উপজেলা, পৌর ও দলের সহযোগী সংগঠনের নেতা কর্মীরা।

0Shares

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ