ধনিক তোষণ ও গরিব শোষণের ২০২৩-২৪ অর্থবছরের বাজেট প্রত্যাখ্যান করে বাসদের সমাবেশ

প্রকাশিত: ৭:৩৫ অপরাহ্ণ, জুন ৯, ২০২৩

ধনিক তোষণ ও গরিব শোষণের ২০২৩-২৪ অর্থবছরের বাজেট প্রত্যাখ্যান করে বাসদের সমাবেশ

ডায়াল সিলেট ডেস্ক : মৌলভীবাজার চৌমুহনায় বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল-বাসদ মৌলভীবাজার জেলা শাখা কর্তৃক ২০২৩-২৪ অর্থবছরের জন্য প্রস্তাবিত বাজেট প্রত্যাখ্যান করে সমাবেশের আয়োজন করে। সামরিক-প্রশাসনিকসহ সকল অনুৎপাদনশীল খাতে ব্যয় কমানো এবং শিক্ষা, স্বাস্থ্য, কৃষি, সামাজিক সুরক্ষাসহ জনকল্যাণমূলক খাতে বরাদ্দ বাড়ানোর দাবিতে অনুষ্ঠিত সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন বাসদ মৌলভীবাজার জেলা সমন্বয়ক এডভোকেট মঈনুর রহমান মগনু এবং সঞ্চালনা করেন জেলা সদস্য বিশ্বজিৎ নন্দী। ৯ জুন শুক্রবার বক্তব্য রাখেন বাসদ জেলা সদস্য ও বাংলাদেশ চা শ্রমিক ফেডারেশন কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক দীপংকর ঘোষ, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট মৌলভীবাজার জেলা সহ-সভাপতি প্রীতম দাস। সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন মৌলভীবাজার মৎস্যজীবী ইউনিয়ন (মৌল-৫২) এর সহসভাপতি মোঃ মিয়া ধন, সাধারণ সম্পাদক মোঃ মনজব আলী সহ ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দ।
বক্তারা বলেন, ২ লাখ ৫৭ হাজার ৮৮৫ কোটি টাকার ঘাটতি নিয়ে ৭ লাখ ৬১ হাজার ৭৮৫ হাজার কোটি টাকার ধনিক তোষণের বড় বাজেট দেয়া হয়েছে। বড় বাজেটে গুরুত্বপূর্ণ খাতগুলো যেমন স্বাস্থ্য, শিক্ষা, কৃষি, কর্মসংস্থান ক্ষেত্রে বরাদ্দ তেমন বাড়ানো হয়নি। বরং বরাদ্দ আরো কমিয়ে দেয়া হয়েছে। সামরিক-প্রশাসনিক সহ সকল অনুৎপাদনশীল খাতে ব্যয় বরাদ্দ প্রতি বাজেট বাড়ছে। বাজেট হওয়ার কথা জনকল্যাণমুখী, কিন্তু বাজেট হয়েছে বৈষম্যমূলক। বাজেটে দ্রব্য মূল্যের দাম নিয়ন্ত্রণ না করে বরং বাড়ানোর নানা অজুহাত রেখেছে। এমন বৈষম্যমূলক বাজেট জনগণের বাজেট হতে পারে না। যে বাজেটে ছাত্র, কৃষক, শ্রমিকের কথা উপেক্ষিত সেটা জনগণের বাজেট না, সেটা মূলত ধনিক শ্রেণীর লাভের বাজেট। এমন বৈষম্যমূলক বাজেট দিয়ে দেশ পরিচালিত হতে পারে না। তাই গণমানুষের কল্যাণের বাজেট দিতে হবে।

0Shares

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ