জাল ভিসায় রোমানিয়া পাঠিয়ে প্রতারণা:বড়লেখায় দুই সহোদরের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

প্রকাশিত: ১২:৫১ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ৫, ২০২৩

জাল ভিসায় রোমানিয়া পাঠিয়ে প্রতারণা:বড়লেখায় দুই সহোদরের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

ডায়াল সিলেট ডেস্ক: জাল ভিসায় রোমানিয়া পাঠিয়ে প্রতারণা ও হুমকি-ধমকির অভিযোগে দায়েরকৃত মামলায় দুই সহদোরের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত। বৃহস্পতিবার দুপুরে বড়লেখা সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ জিয়াউল হক এই গ্রেফতারি পরোয়ানার আদেশ জারি করেন। অভিযুক্তরা হচ্ছেন, উপজেলার তালিমপুর ইউপির বড়ময়দান গ্রামের সুবিনয় দাস শুভ্র (৩৩) ও শুভাশীষ দাস (৩৮)।
মামলা সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার দাসেরবাজার ইউপির পানিসাওয়া গ্রামের মাখন লাল দাসের ছেলে মিশন লাল দাসকে রোমানিয়া পাঠানোর জন্য বিভিন্ন মেয়াদে ৮ লাখ ৬০ হাজার টাকা নেন সুবিনয় দাস শুভ্র ও শুভাশীষ দাস। কিন্তু তারা মিশন লাল দাসকে রোমানিয়ার জাল ভিসা দিয়ে ঢাকা থেকে রোমানিয়া নিয়ে যায়। গত মার্চে রোমানিয়ার বিমানবন্দরে ভিসা জাল ধরা পড়ায় মিশন লাল দাসকে বাংলাদেশে ফেরত পাঠায় রোমানিয়া ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষ। এরপর সুবিনয় দাস শুভ্র ও তার পরিবারের সাথে যোগাযোগ করলেও টাকা ফেরত কিংবা কোনো প্রতিকার পাননি মাখন লাল দাস। অবশেষে গত ২৯ মার্চ বড়লেখা সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে দুই সহদোরের বিরুদ্ধে প্রতারণা মামলা করেন মাখন লাল দাস। মামলার প্রেক্ষিতে আদালত ঘটনাটি তদন্ত করে প্রতিবেদন দিতে বড়লেখা ট্যুরিস্ট পুলিশের ইন্সপেক্টরকে নির্দেশ দেন। এরপর ট্যুরিস্ট পুলিশের এসআই সুমন সরকার গত ১১ জুন ঘটনার সত্যতা পেয়ে আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করলে আদালত গত ২৫ জুন অভিযুক্তদের আদালতে হাজির হতে সমন জারি করেন।
বিষয়টি নিশ্চিত করে আদালতের বেঞ্চ সহকারি শফিউল আলম বেলালী জানান, বৃহস্পতিবার ধার্য তারিখে অভিযুক্তরা হাজির না হওয়ায় তাদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত।

0Shares

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ