জমকালো উদ্বোধনের অপেক্ষায় এশিয়ান গেমস

প্রকাশিত: ৫:১৪ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০২৩

জমকালো উদ্বোধনের অপেক্ষায় এশিয়ান গেমস

স্পোর্টস ডেস্ক :: চীনের হাংজু শহরে গেমসের ছোঁয়া লেগেছে। প্রায় সব বড় সড়কেই রয়েছে গেমসের ব্যানার-ফেস্টুন। চারদিন আগেই ক্রিকেট ও ফুটবল খেলা শুরু হয়েছে। যদিও গেমসের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হবে আজ শনিবার। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সকল ক্রীড়াপ্রেমীর মনোযোগ ধরে রাখতে এদিন কোনো খেলা রাখা হয়নি।

 

হাংজু অলিম্পিক স্পোর্টস সেন্টারে এশিয়ান গেমসের উদ্বোধন অনুষ্ঠিত হবে। চাইনিজরা অনুষ্ঠান আয়োজন করতে পারঙ্গম। ২০০৮ সালে বেইজিং অলিম্পিক গেমসের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান নিয়ে এখনও সারাবিশ্বে আলোচনা হয়। আজকের গেমসের উদ্বোধনেও চমক দিতে চায় চীন। তাই স্বাগতিক চীন ও আয়োজক অলিম্পিক কাউন্সিল অফ এশিয়া (ওসিএ) অনেক তথ্যই চমক হিসেবে গোপন রেখেছে। দুই পক্ষই এক সুরে বলেছে, ‘বেশ চমকপ্রদ উদ্বোধনী অনুষ্ঠান হবে।’

 

হাংজুতে প্রতিদিনই গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি হচ্ছে। আজ উদ্বোধনী দিনে বৃষ্টি হলে রয়েছে বিকল্প ব্যবস্থা। স্থানীয় সময় রাত ৮টায় অনুষ্ঠান শুরু হওয়ার কথা। প্রায় দুই ঘণ্টা ব্যাপী চলবে এই অনুষ্ঠান। চীনের নিজস্ব সংস্কৃতি ছাড়াও এশিয়া মহাদেশের নানা কৃষ্টিও তুলে ধরা হবে বলে জানা গেছে। গেমসের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন চীনের রাষ্ট্রপতি শি জিন পিং।

 

এশিয়ান গেমসের মার্চ পাস্টে বাংলাদেশের পতাকা বহন করবেন দুই কৃতি ক্রীড়াবিদ সাবিনা খাতুন ও নিয়াজ মোর্শেদ। বাংলাদেশ দলের নেতৃত্ব দেবেন বিওএ’র কোষাধ্যক্ষ একে সরকার। বাংলাদেশ এই গেমসে ১৭ ডিসিপ্লিনে অংশগ্রহণ করবে। খেলোয়াড়, কোচ ও কর্মকর্তা মিলিয়ে কন্টিনজেন্ট প্রায় ২৫০ জনের।

 

ফ্যাক্টস এন্ড ফিগার

 

** হাংজু চীনের তৃতীয় শহর হিসেবে এশিয়ান গেমসের আয়োজন করছে। ইতোপূর্বে ১৯৯০ সালে বেইজিং এবং ২০১০ সালে গুয়াংজুতে এশিয়ান গেমসের আসর বসেছিল।

 

** এশিয়ান গেমসে ১২ হাজার ৪১৭ জন ক্রীড়াবিদ অংশ নিচ্ছেন। যা ২০২০ সালে টোকিও অলিম্পিকস এবং ২০২৪ সালে অনুষ্ঠিতব্য প্যারিস অলিম্পিকের চেয়েও বেশি।

 

** এই গেমসে উত্তর কোরিয়ার ২০০ অ্যাথলেট অংশগ্রহণ করছেন। তিন বছর পর মাল্টি স্পোর্টস গেমসে অংশগ্রহণ করছে উত্তর কোরিয়া।

 

** হাংজু এশিয়াডের মাধ্যমে অভিষেক ঘটছে ই-স্পোর্টসের।

 

** এশিয়ান গেমসের ইতিহাসে এবারই প্রথম বক্সিং অলিম্পিকের বাছাই হিসেবে গণ্য হচ্ছে।

 

** এই গেমসের অন্যতম লক্ষ্য কার্বন-নিঃসরণ কমিয়ে আনা। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানেও কার্বন নিঃসরণ শূন্য মাত্রায় করার পরিকল্পনা আয়োজকদের।

 

** গেমসের ইতিহাসে হাংজু প্রথম ক্যাশলেস গেমস এবং ক্যাশলেস শহর।

 

0Shares