বাংলাদেশিদের রেকর্ডসংখ্যক ভিসা দিয়ে ভারত খুশি: রিভা গাঙ্গুলি

dial dial

sylhet

প্রকাশিত: ৯:৪৩ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ৩১, ২০১৯

ডায়ালসিলেট ডেস্ক:গত এক বছরে বাংলাদেশিদের ১৫ লাখ ভিসা দিয়েছে ভারত। এটিকে বিশ্বের যে কোনো দেশের চেয়ে বাংলাদেশিদের রেকর্ডসংখ্যক ভিসা প্রদান উল্লেখ করে এতে ভারত সরকার খুশি বলে জানিয়েছেন দেশটির হাইকমিশনার রিভা গাঙ্গুলি দাশ।

মঙ্গলবার দক্ষিণ এশিয়ার সর্ববৃহৎ শপিংমল যমুনা ফিউচার পার্কে ভারতীয় ভিসা সেন্টারে এক অনুষ্ঠানে তিনি একথা জানান।অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের তিন মুক্তিযোদ্ধার হাতে পাঁচ বছরের ভারতের মাল্টিপল ভিসা তুলে দেন হাইকমিশনার।

মাল্টিপল ভিসাপ্রাপ্ত তিনজন হলেন- বীর মুক্তিযোদ্ধা ড. মোহাম্মদ শফিউল ইসলাম, বীর মুক্তিযোদ্ধা ড. নূর মোহাম্মদ মল্লিক ও বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আতিয়ার রহমান।

বাংলাদেশিদের ভারতীয় ভিসা প্রদান দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। ২০১৯ সালে ১৫ লাখেরও অধিক ভিসা প্রদান করা হয়েছে। রেকর্ডসংখ্যক ভিসা প্রদান এর আগে কোনো বছর হয়নি। এ বছর ভারতে মোট বিদেশি পর্যটকের ৬৫.৬১ শতাংশই বাংলাদেশি। বিশ্বের যে কোনো দেশের চেয়ে বাংলাদেশিদের রেকর্ডসংখ্যক ভিসা প্রদানে ভারত সরকারও খুশি। আগামী বাংলাদেশিদের ভারতীয় ভিসা প্রদান আরও বাড়বে- এমনটাই জানালেন ঢাকায় নিযুক্ত দেশটির হাইকমিশনার রিভা গাঙ্গুলি দাশ।

রেকর্ডসংখ্যা ভিসা প্রদান বছরটি স্মরণীয় করে রাখতে মঙ্গলবার সকালে যমুনা ফিউচার পার্কে ভারতীয় ভিসা সেন্টারে এক বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

এতে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় ভারতীয় হাইকমিশনার রিভা গাঙ্গুলি দাশ জানান, গত এক বছরে ১৫ লাখ ভিসা এর আগে কখনই ইস্যু করা হয়নি। ২০১৯ সালে বাংলাদেশিদের ১৫ লাখ ভিসা প্রদান করা হয়েছে। এত সংখ্যক ভিসা বিশ্বের কোথাও দেয়া হয়নি। এ জন্য ভারত সরকার তথা আমরা খুবই খুশি। বাংলাদেশিরা ভারতে অনেক যায়। বিভিন্ন কারণে বাংলাদেশিরা ভারতে যাওয়ার প্রয়োজন পড়ে। কেউ উৎসবে কেনাকাটা করতে যায়, কেউ চিকিৎসা, কেউ আবার ঘুরতে যায়। পড়াশোনা এবং ব্যবসার জন্যও অনেকে যাচ্ছেন।

রিভা গাঙ্গুলি দাশ বলেন, যমুনা ফিচার পার্কে ভারতীয় ভিসা সেন্টারটি পৃথিবীর সর্ববৃহৎ ভিসা সেন্টার। বাংলাদেশে এ ভিসা সেন্টারটিসহ মোট ১৫টি ভিসা সেন্টার খোলা রয়েছে। এর মধ্যে ২০১৯ সালে ৯টি ভিসা সেন্টার চালু করা হয়েছে। ভিসা প্রাপ্তদের সুর্বিধার্থে দেশের বিভিন্ন স্থানে এ ভিসা সেন্টারগুলো খোলা হয়েছে। যে যেখানেই থাকুক, খুব সহজেই ভারতীয় ভিসার জন্য আবেদন করতে পারছে। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে ভারতীয় ভিসা প্রদান করা হচ্ছে। আমরা এর সুফলও পাচ্ছি। মাত্র কয়েক বছর আগেও বছরে ৭ থেকে ৮ লাখ ভিসা প্রদান করা হতো। এখন তা ১৫ লাখে পৌঁছেছে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশে আবেদন কেন্দ্রের সংখ্যা বেশি এবং ভিসা প্রক্রিয়া খুবই সহজ করা হয়েছে। আর এ জন্য ভিসা জমা এবং দেয়ার সংখ্যা বাড়ছে। আমরা খুবই খুশি, ভিসা প্রক্রিয়া এতই সহজ করা হয়েছে যে, আজকাল আমাদের ভিসা নিয়ে বলতেই হয় না। ভিসা খুবই সহজে ইস্যু করা হচ্ছে। আমরা চাইব যে, লোকেরা আরও বড় সংখ্যক ভারতে যাক, আমাদের যাতায়াত বাড়ুক।

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ভারতীয় হাইকমিশনের ডেপুটি হাইকমিশনার বিশ্ব দ্বীপ দে, দ্বিতীয় সচিব (ভিসা ও কনস্যুলার) বিশাল জ্যোতি দাশ, কর্মকর্তা (অ্যাটাশে প্রেস অ্যান্ড ইনফরমেশন) দেবব্রত পাল।

0Shares