বাংলাদেশ মিশনসমূহকে প্রবাসী বান্ধব হতে নির্দেশনা পররাষ্ট্রমন্ত্রীর

dial dial

sylhet

প্রকাশিত: ১০:৩৭ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ৩১, ২০১৯

ডায়ালসিলেট ডেস্ক:পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ. কে. আব্দুল মোমেন বিদেশস্থ বাংলাদেশের মিশন প্রধানদের বরাবরে লেখা অভিন্ন চিঠিতে মিশনসমূহকে আরও প্রবাসীবান্ধব হওয়ার নির্দেশনা দিয়েছেন। মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, মিশনগুলোতে কনস্যুলার সেবা প্রদানে অধিকতর মনোযোগী হয়ে বহির্বিশ্বে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি সমুন্নত রাখারও নির্দেশ দিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। ড. মোমেন কনস্যুলার সেবার মানন্নোয়নে এবং প্রবাসী বাংলাদেশীদের সেবা প্রদানে মিশনসমূহের যে কোন মতামত বিবেচনা করার আশ্বাস দিয়ে বলেন, ২৪ ঘন্টা হটলাইন, দূতাবাস অ্যাপস, অভিযোগবাক্স স্থাপন, এয়ারপোর্টে সিসিটিভি স্থাপনের মাধ্যমে সেবার মান উন্নীতকরণ ও হয়রানি বন্ধের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। তবে প্রবাসীদের সমস্যাগুলো মানবিক দৃষ্টিকোণ থেকে ত্বরিতবেগে বিবেচনা করার উপর গুরুত্বারোপ করে তিনি পত্রে আরো উল্লেখ করেন, ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেটের ঘোষণা অনুযায়ী প্রবাসী বাংলাদেশিদের বৈধ চ্যানেলে প্রেরিত রেমিটেন্সের বিপরীতে ২ শতাংশ হারে নগদ সহায়তা দেয়া হচ্ছে। বাংলাদেশে দক্ষ মানবসম্পদ সৃষ্টিতে স্বাগতিক দেশ কিভাবে সহযোগিতা করতে পারে, তা পরীক্ষা করে সে অনুযায়ী সহযোগিতার ক্ষেত্র সৃষ্টি করার জন্যও নির্দেশনা দেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি উল্লেখ করেন, বাংলাদেশে দক্ষ মানবসম্পদ তৈরি হলে একদিকে যেমন বিদেশী বিনিয়োগকারীরা তার ফল উপভোগ করবে, একইসঙ্গে আমাদের দেশে কর্মসংস্থানেরও সুযোগ সৃষ্টি হবে। সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রীর সদয় নির্দেশনায় তাঁর কার্যালয়ের অধীনে জাতীয় দক্ষতা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (এনএসডিএ) গঠিত হয়েছে। দক্ষ মানবসম্পদ সৃষ্টিতে এ প্রতিষ্ঠান অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবে বলে তিনি আশা করেন।পররাষ্ট্রমন্ত্রী উল্লেখ করেন, দেশের উন্নয়নের গতি ধরে রাখতে দক্ষ জনশক্তি গড়ার প্রথম এবং প্রধান পদক্ষেপ শিক্ষিত, উন্নত প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত এবং সামাজিকভাবে সচেতন তরুণ সমাজ গড়তে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিতকরণে সর্বোচ্চ গুরুত্ব আরোপ করছে। দক্ষ মানবসম্পদ তৈরির অংশ হিসেবে সারাদেশে ৫,৮০০ ডিজিটাল সেন্টার তৈরির মাধ্যমে ৬০০ ধরনের সরকারি সেবা তথ্য প্রযুক্তির মাধ্যমে জনগণের কাছে পৌঁছে দেয়া হচ্ছে। বাংলাদেশে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা আজ ৯ কোটির ওপরে। বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইটের মাধ্যমে আজ দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলেও যোগাযোগ এবং সম্প্রচার ব্যবস্থার ব্যাপক উন্নয়ন সম্ভব হয়েছে।

0Shares