বরিশালে মাদ্রাসা শিক্ষককে জুতার মালা পড়ালো স্থানীয় চেয়ারম্যান-মেম্বার,ফেসবুকে ভিডিও ভাইরাল

প্রকাশিত: ১:১৪ পূর্বাহ্ণ, জুন ৪, ২০২০

বরিশালের মেহেন্দিগঞ্জে জনৈক এক মাদ্রাসা শিক্ষকের হাত বাঁধাসহ গলায় জুতার মালা পরিয়ে অপমান/অসম্মান করা হয়েছে। স্থানীয় দড়িচর খাজুরিয়া দাখিল মাদ্রাসার শিক্ষক আলাউদ্দিন প্রায় ষাটোর্ধ্ব মাওলানাকে সালিশ বৈঠকে দোষী সাব্যস্ত করেন ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মোস্তফা রাড়ী ও স্থানীয় চেয়ারম্যানের নির্দেশেই এই বৃদ্ধ ব্যক্তিকে গলায় জুতার মালা পরিয়ে ভিডিও ধারণ করে তাকে নির্যাতন করা হয় ।
ঘটনাটি বুধবার সকালের ইউনিয়ন পরিষদের একটি ভিডিওচিত্রটি রাতে সামাজিক যোগযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে শুরু হয় তোলপাড়।
এই ভিডিও দেখে অনেকেই বিভিন্নভাবে প্রতিবাদ জানান। এজন্য স্থানীয় প্রশাসনের প্রয়োজনীয় প্রদক্ষেপ নেওয়ার ও দাবি জানান অনেকে।

স্থানীয় একটি সূত্র জানায়- খাজুরিয়া দাখিল মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির ৫০ হাজার টাকা আত্মসাতের অভিযোগ ওঠে শিক্ষক আলাউদ্দিন নামের মাদ্রাসা শিক্ষকের বিরুদ্ধে। এনিয়ে বুধবার স্থানীয় এমপি পঙ্কজ দেবনাথের ক্যাডার হিসেবে পরিচিত ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মোস্তফা রাড়ী সালিশ বৈঠকে বসেন। শহীদ ও ফিরোজ মেম্বরের উপস্থিতিতে সালিশীর একপর্যায়ে শিক্ষক ও স্থানীয় একটি মসজিদের ইমাম আলাউদ্দিনকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেন। জরিমানার এই অর্থ তাৎক্ষণিক দিতে না পারায় ইউনিয়ন পরিষদের ভেতরে সকলের উপস্থিতিতে প্রথমে তার হাত বেঁধে মারধর করা হয়। পরে চেয়ারম্যান ও মেম্বারসহ তাদের সহযোগীরা ঐ শিক্ষকের গলায় জুতার মালা পরিয়ে ভিডিও ধারণ করে ফেইসবুক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার করা হয়।

এসময় চেয়ারম্যান নিজেই ভিডিও ধারণের নির্দেশ দেন এবং জুতার মালা পরান । এসময় পাশ থেকে একজন ভিডিও করতে নিষেধ করলে চেয়ারম্যান তাকে হুমকি দেন । এই ন্যাক্কারজনক ঘটনার পর মাদ্রাসাশিক্ষক আত্মগোপনে রয়েছেন বলে যোগাযোগ মাধ্যমে লেখা হয়।

এ ঘটনা তদন্তপুর্বক জড়িতদের আইনের আওতায় নিয়ে আসার দাবি জানাচ্ছেন অনেকে।

 

0Shares