সিলেটে টিকা পাবে সাড়ে চার লাখ শিশু

dial dial

sylhet

প্রকাশিত: ১২:৫৩ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২২, ২০২০

ডায়ালসিলেট::জাতীয় ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইনের আওতায় এবার সিলেট জেলায় ৪ লাখ ৬১ হাজার ৫১৭ জন শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। আগামী ২৬ সেপ্টেম্বর থেকে ৮ অক্টোবর পর্যন্ত এই ক্যাম্পেইন চলবে। গতকাল সোমবার সিলেট জেলা ইপিআই মিলনায়তনে ভিটামিন এ প্লাস সম্পর্কিত এক পরিকল্পনা সভা ও মতবিনিময় সভায় সিলেট বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. সুলতানা রাজিয়া এ তথ্য জানিয়েছেন।

সুলতানা রাজিয়া জানান, আগামী ৪ অক্টোবর থেকে ১৫ অক্টোবর পর্যন্ত ১৪ দিনব্যাপী ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন চলবে। প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত স্বাস্থ্যবিধি মেনে জেলায় ১৪৫টি ইপিআই সেন্টারে ৬ থেকে ১১ মাস বয়সী শিশুকে একটি নীল রঙের ক্যাপসুল এবং ১২ থেকে ৫৯ মাস বয়সী শিশুকে একটি লাল রঙের ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। এর মধ্যে ৮৫৭ জন প্রতিবন্ধী শিশুও রয়েছে বলে তিনি জানিয়েছেন।

সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে সুলতানা রাজিয়া বলেন, ‘করোনা পরিস্থিতিতে ভিটামিন এ প্লাস কর্মসূচি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। স্বাস্থ্য বিভাগীয় কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের শতভাগ পেশাদারিত্ব ও সততার সঙ্গে এ কর্মসূচি বাস্তবায়নে কাজ করতে হবে। বিশেষ করে স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিশুদের টিকা খাওয়ানোর কর্মসূচি সফলভাবে সম্পন্ন করা জরুরি।’ এ সময় তিনি করোনা সংক্রমণ ও নিয়ন্ত্রণ পরিস্থিতির গুরুত্ব তুলে ধরে সকল পর্যায়ের নাগরিকদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা এবং মাস্ক ব্যবহারের ওপর জোর দেন।

সিলেটের সিভিল সার্জন ডা. প্রেমানন্দ মন্ডলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহকারী স্বাস্থ্য পরিচালক রত্না দাস। বক্তব্য দেন, উপ পরিচালক (পরিবার পরিকল্পনা) ডা. জেসমিন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাহবুবুল আলম, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বায়োজিদ খান, সহকারী কমিশনার তানিয়া আক্তার, সিলেট সিটি করপোরেশনের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. জাহিদুল ইসলাম, সিলেট প্রেসক্লাব সভাপতি ইকবাল সিদ্দিকী প্রমুখ। এছাড়া উপজেলা পর্যায়ের স্বাস্থ্য কর্মকর্তাবৃন্দ ও বেসরকারি সংস্থাগুলোর প্রতিনিধিগণ এই সভায় উপস্থিত ছিলেন।

নগরে ভিটামিন এ ক্যাপসুল পাবে ৬১ হাজার ৪১৭ শিশু: জাতীয় ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইন উপলক্ষে সিটি করপোরেশনের (সিসিক) অবহিতকরণ ও পরিকল্পনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় জানানো হয় এবার ৬১ হাজার ৪১৭ জন শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ খাওয়ানো হবে। গতকাল সোমবার বিকেলে নগর ভবনের সম্মেলন কক্ষে সিসিকের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মো. জাহিদুল ইসলামের পরিচালনায় এই অবহিতকরণ ও পরিকল্পনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন সিসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বিধায়ক রায় চৌধুরী।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিধায়ক রায় চৌধুরী বলেন, ‘করোনা পরিস্থিতিতে কোনো শিশু যেন এই ক্যাম্পেইন থেকে বাদ না পড়ে সেজন্য স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে সবাইকে দায়িত্ব পালন করতে হবে।’ শিশুদের স্বাস্থ্য ঝুঁকি বিবেচনায় স্বাস্থ্য সেবাকর্মী, স্বেচ্ছাসেবক ও অভিভাবকদের প্রতি স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে অনুরোধ জানান তিনি। সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন, সিসিকের শিক্ষা, স্বাস্থ্য পরিবার পরিকল্পনা এবং স্বাস্থ্যরক্ষা ব্যবস্থা স্থায়ী কমিটির সভাপতি কাউন্সিলর তারেক উদ্দিন তাজ ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক ডা. মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান।

সিলেট সিভিল সার্জন কার্যালয়ের মেডিকেল অফিসার ডা. স্বপ্নীল সৌরভ রায় করোনাকালীন এই বিশেষ জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন সম্পর্কে বিস্তারিত তুলে ধরেন। সভায় সরকারি বিভিন্ন দপ্তর ও শাখাসহ দেশি বিদেশি বেসরকারি সংস্থাসমূহের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

এবার করোনা পরিস্থিতি বিবেচনায় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় দুই সপ্তাহ ধরে জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন পরিচালনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সিলেট সিটি করপোরেশনে দুই সপ্তাহব্যাপী এই ক্যাম্পেইন শুরু হবে ৪ অক্টোবর থেকে। সিলেট সিটি করপোরেশনের স্থায়ী এবং অস্থায়ী ইপিআই কেন্দ্র্র সমূহে জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন পরিচালিত হবে। এতে শূন্য থেকে ৫ বছর বয়সের শিশুদের ভিটামিন ‘এ’ খাওয়ানো হবে।

0Shares