সিলেটের এমসি কলেজে ধর্ষণের রাতে এমসি কলেজে ছাত্রাবাসে সাইফুর রহমান কক্ষ থেকে অস্ত্র উদ্ধার

প্রকাশিত: ৪:৫৬ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ৩, ২০২০

ডায়ালসিলেট ডেস্কঃঃ সিলেটের মুরারিচাঁদ (এমসি) কলেজে ধর্ষণের রাতে এমসি কলেজে ছাত্রাবাসে সাইফুর রহমানের দখলে থাকা কক্ষ থেকে অস্ত্র উদ্ধারের ঘটনায় দুই জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট হয়েছে। চার্জশিটে সাইফুরকে প্রধান আসামী করা হয়েছে। এ মামলার অপর আসামী শাহ মাহবুবুর রহমান রনি।

বৃহস্পতিবার সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ (এসএমপি)-এর উদ্যোগে আয়োজিত ব্রিফিংয়ে উপ-কমিশনার সোহেল রেজা এ তথ্য জানান। তিনি জানান, হোস্টেলে সাইফুরের কক্ষে অভিযান চালিয়ে আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে সাইফুরের বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে মামলা করে। সেই মামলায় গত ২২ নভেম্বর এ দুজনকে অভিযুক্ত করে ১৮৭৮ সালের অস্ত্র আইনের ১৯/১৯-এ ধারায় চার্জশিট দাখিল করা হয়েছে। চার্জশিট নম্বর-১৬৪। অস্ত্রের বিষয়ে সাইফুর ও রনি পরস্পরকে বেøইম (অভিযুক্ত) করছে বলে জানান সোহেল রেজা।

গত ২৫ সেপ্টেম্বর রাতে এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে স্বামীকে বেঁধে রেখে স্ত্রীকে গণধর্ষণের ঘটনার রাতেই ছাত্রাবাসে সাইফুর রহমানের (২৮) কক্ষে তল্লাশি চালিয়ে একটি পাইপগান, ৪টি রামদা, ২টি চাকু উদ্ধার করে পুলিশ। অস্ত্র মামলা ছাড়াও গণধর্ষণের মামলারও চার্জশিটে অভিযুক্ত রয়েছেন সাইফুর ও রনি। তারা সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক রণজিৎ সরকারের অনুসারী।

0Shares