সিলেটে অ্যান্টিজেন টেস্ট শুরু, প্রথম দিনে ৫ জন শনাক্ত

dial dial

sylhet

প্রকাশিত: ৯:৫৪ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ৫, ২০২০

ডায়ালসিটে::

দ্রুততম সময়ের মধ্যে করোনা আক্রান্ত ব্যক্তিদের শনাক্তের জন্য সিলেটে শুরু হয়েছে ‘অ্যান্টিজেন টেস্ট’। আজ শনিবার (৫ ডিসেম্বর) দুপুর সাড়ে ১২টা থেকে এই টেস্ট শুরু হয়েছে শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালে। এই টেস্টের জন্য কোনো ধরনের ফি নেওয়া হচ্ছে না। অ্যান্টিজেন টেস্টের মাধ্যমে মাত্র আধাঘন্টার মধ্যে ফলাফল পাওয়া যাবে। এদিকে আজ ১০টি অ্যান্টিজেন টেস্টের মাধ্যমে ৫ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হাসপাতালের মেডিসেন বিভাগের চিকিৎসক ডা. জন্মেজয় দত্ত। তিনি বলেন,‘আজ মোট ১০ জনের অ্যান্টিজেন টেস্ট করা হয়। এর মধ্যে ৫ জনের পজেটিভ আসে এবং ৫ জনের নেগেটিভ আসে।’

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, সিলেটসহ দশটি জেলায় আজ শনিবার থেকে শুরু হয়েছে অ্যান্টিজেন টেস্ট। পর্যায়ক্রমে দেশের অন্যান্য জেলাগুলোতেও এই টেস্ট শুরু হবে।

অ্যান্টিজেন টেস্টের জন্য সংশ্লিষ্ট দশটি জেলার চিকিৎসক, মেডিকেল টেকনোলজিস্ট ও পরিসংখ্যানবিদদের প্রশিক্ষণ দিয়েছে সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা কেন্দ্রের (আইইডিসিআর)।

শামসুদ্দিন হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, আজ দুপুর সাড়ে ১২টা থেকে সিলেটের শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালে অ্যান্টিজেন টেস্ট শুরু হয়। যাদের মধ্যে তিন দিন বা এর বেশি সময় ধরে করোনাভাইরাসের উপসর্গ আছে, শুধুমাত্র তাদের নমুনার অ্যান্টিজেন টেস্ট হচ্ছে। যাদের মধ্যে কোনো উপসর্গ নেই, তাদের নমুনা স্বাভাবিকভাবে আরটি-পিসিআর ল্যাবেই পরীক্ষা করা হবে। অ্যান্টিজেন টেস্টের জন্য প্রথম লটে সিলেটে ৫০০ কিট পাঠানো হয়েছে। এগুলো শেষ হওয়ার আগেই আরও কিট পাঠানো হবে।

এবিষয়ে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. হিমাংশু লাল রায় বলেন, ‘শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালে আজ থেকে শুরু হয়েছে অ্যান্টিজেন টেস্ট। এর মাধ্যমে আধাঘন্টার মধ্যে আমরা কেউ আক্রান্ত কী-না, তা জানতে পারবো। যাদের শরীরে করোনার উপসর্গ তাদেরকে অ্যান্টিজেন টেস্টের আওতায় আনা হবে। উপসর্গ না থাকলে নমুনা পরীক্ষা হবে আরটি-পিসিআর ল্যাবে।’

হিমাংশু লাল রায় আরও বলেন, ‘অ্যান্টিজেন টেস্টের জন্য আমরা ন্যাসাল সোয়াব (নাকের ভেতর থেকে নমুনা) নেব। প্রত্যেকের দুটি করে স্যাম্পল নেওয়া হবে। অ্যান্টিজেন টেস্টে কেউ পজিটিভ হলে তাকে জানিয়ে দেওয়া হবে। আর কেউ নেগেটিভ হলে অধিকতর নিশ্চিতের জন্য আরেকটি নমুনা পরীক্ষা করা হবে আরটি-পিসিআর ল্যাবে।’

তিনি বলেন, ‘অ্যান্টিজেন টেস্টের জন্য সরকার কোনো ফি নির্ধারণ করেনি। এজন্য এটা বিনামূল্যে করা হবে। যতো সংখ্যক রোগী আসবেন, ততো সংখ্যক রোগীর পরীক্ষাই করা হবে।’

0Shares