হাসপাতালে যেমন আছেন ফারুক জানালেন ছেলে

dial dial

sylhet

প্রকাশিত: ১:৩৭ অপরাহ্ণ, মার্চ ১৪, ২০২১

বিনোদন ডেস্ক ::

বাংলাদেশের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রাপ্ত অভিনেতা ও চলচ্চিত্রের ইতিহাসে সবচেয়ে সফল নায়কদের একজন আকবর হোসেন পাঠান দুলু (জন্ম ১৮ আগস্ট ১৯৪৮) যিনি ফারুক নামে অধিক পরিচিত।

চিত্রনায়ক ফারুক সিঙ্গাপুরের হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। শনিবার, দিনভর ফারুকের অসুস্থতার খবর বাতাসে ভাসতে থাকে। সেই সঙ্গে ছড়িয়ে পড়ে ফারুকের অবস্থা গুরুতর-এমন খবর। অবশ্য এমন খবরে বিভ্রান্ত হয়েছে ফারুকের পরিবার থেকেই। দেশের সধীর্ষ গণমাধ্যমে খবর প্রকাশ হয় ফারুক সিঙ্গাপুরের হাসপাতালে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) ভর্তি রয়েছেন, অবস্থা গুরুতর।

সুত্রে জানা যায়, আমি এখন সুস্থ। সব ঠিকঠাক থাকলে বৃহস্পতিবার দেশে ফিরব। সিঙ্গাপুর সময় কাল বেলা সাড়ে তিনটার বিমানের টিকিট করা আছে। বুধবার দুপুরে সিঙ্গাপুর থেকে এভাবেই বললেন চলচ্চিত্রের বরেণ্য অভিনয়শিল্পী ও সাংসদ আকবর হোসেন পাঠান ফারুক। গত ১৩ সেপ্টেম্বর উন্নত চিকিৎসার জন্য ফারুককে সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। সাত বছর ধরে সিঙ্গাপুরের এ হাসপাতালেই তিনি নিয়মিত স্বাস্থ্য পরীক্ষা করিয়ে আসছেন। এবার সিঙ্গাপুর যাওয়ার আগে নায়ক ফারুক দীর্ঘদিন ধরে জ্বরে ভুগছিলেন।

এছাড়া দেশের সধীর্ষ গণমাধ্যমে খবর প্রকাশ হয় ফারুক সিঙ্গাপুরের হাসপাতালে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) ভর্তি রয়েছেন, অবস্থা গুরুতর। কেননা আসমা নামের ফারুকের একজন ভাতিজি গণমাধ্যমে যে খবর দিয়েছিলেন সে খবরকে নাকচ করে দেন ফারুকের ছেলে শরৎ।

শনিবার দিবাগত রাতে এক আলাপে রোশন হোসেন পাঠান শরৎ বলেন, ‘এই খবর গণমাধ্যমে দেখে আমরা বিভ্রান্ত হয়েছি। বাবা সিঙ্গাপুরে রয়েছেন এটা ঠিক। কিন্তু তাই বলে আইসিইউ? আমার এক কাজিন এই খবর ছড়িয়েছেন যেটা আদতে সত্য নয়। বাবা কেবিনে রয়েছেন। খুব স্বাভাবিক রয়েছেন। যদি বলতে হয়, তাহলে বলবো বাবা ভালো আছেন।’

শরৎ আরো জানান, ‘বাবা-মা গত ৪ তারিখে সিঙ্গাপুরে যান। সেখানে গিয়ে কোয়ারেন্টিনে থাকেন। এরপর হাসপাতালে ৯ মার্চ ভর্তি হন। আপনারা হয়তো জানেন বাবার টিবি (যক্ষ্মা) হয়েছিল। যার ফলে সেখানে পরীক্ষা করাতে রক্তে ইনফেকশন ধরা পড়ে। যেটা গুরুতর কিছু নয়। এই হাসপাতালেই যেহেতু টিবি ধরা পড়েছিল তাই বাবা-মা সেখানেই চলে যান। এখন মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে চিকিৎসক ড.লাই-এর চিকিৎসা নিচ্ছেন বলে জানান তিনি।

0Shares