লিটারে চার টাকা বাড়লো সয়াবিনের দাম

প্রকাশিত: ৯:১৫ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৬, ২০২১

লিটারে চার টাকা বাড়লো সয়াবিনের দাম

ডায়ালসিলেট ডেস্ক::দেশে সয়াবিন তেলের দাম প্রতি লিটারে ৪ টাকা বাড়িয়েছে মূল্য নির্ধারণ সংক্রান্ত জাতীয় কমিটি। রোববার বাণিজ্য মন্ত্রণালয় এবং বাংলাদেশ ট্রেড অ্যান্ড ট্যারিফ কমিশনের সঙ্গে আলোচনা সাপেক্ষে এ দাম নির্ধারণ করা হয়। সয়াবিন তেলের দামে গত জুন মাসে লিটারপ্রতি চার টাকা ছাড় দেয়া ছিল। সেটা তুলে নিয়েছে বিপণনকারী কোম্পানিগুলো। ফলে সাধারণ মানুষের জন্য সয়াবিনের এক লিটারের বোতলের দাম হবে ১৫৩ টাকা, যা আগে ছিল ১৪৯ টাকা।
বাণিজ্য সচিব তপন কান্তি ঘোষ সাংবাদিকদের জানান, দাম পুনঃনির্ধারণের ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক বাজার পরিস্থিতি বিবেচনায় নেয়া হয়েছে। তিনি জানান, পরিশোধিত ও অপরিশোধিত তেলের কাঁচামালের দাম ঊর্ধ্বমুখী। তা সত্ত্বেও কোরবানি ঈদ, শোকাবহ আগস্টসহ করোনা পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে এতদিন দাম পুনঃনির্ধারণ করা হয়নি। তবে রোববার এ সংক্রান্ত জাতীয় কমিটি সর্বসম্মতিক্রমে লিটারে ভোজ্য তেলের দাম চার টাকা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে।
খোলা সয়াবিন তেল প্রতি লিটারের দাম ধরা হয়েছে ১২৯ টাকা। আগে এ দাম ছিল ১২৫ টাকা। বোতলজাত সয়াবিনের দাম লিটারপ্রতি ধরা হয়েছে ১৫৩ টাকা, যা আগে ছিল ১৪৯ টাকা। আর খোলা পাম সুপার প্রতি লিটার ১১৬ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে, যা আগে ছিল ১১২ টাকা। এ ছাড়া ৫ লিটার সয়াবিন তেলের দাম ৭২৮ টাকা ধরা হয়েছে, যা আগে ছিল ৭২৪ টাকা।
ভোজ্যতেল পরিশোধন ও বিপণনকারীদের সংগঠন বাংলাদেশ ভেজিটেবল অয়েল রিফাইনার্স অ্যান্ড বনস্পতি ম্যানুফ্যাকচারার্স এসোসিয়েশন গত ৩০শে জুন সয়াবিন তেলের দাম ৪ টাকা কমানোর কথা জানিয়েছিল। তখন বলা হয়েছিল, বাণিজ্য মন্ত্রণালয় এবং বাংলাদেশ ট্রেড অ্যান্ড ট্যারিফ কমিশনের সঙ্গে আলোচনা সাপেক্ষে পবিত্র ঈদুল আজহা, করোনাভাইরাস পরিস্থিতি ও ভোক্তার ক্রয়ক্ষমতা বিবেচনা করে সয়াবিন, পাম ও অন্যান্য ভোজ্যতেলের দাম নির্ধারণ করা হয়েছে।
এর আগে গত ২৭শে মে সয়াবিন তেলের দাম এক লাফে ৯ টাকা বেড়ে যায়। তাতে বোতলজাত এক লিটার সয়াবিন তেলের দাম ১৪৪ টাকা থেকে বেড়ে লিটারপ্রতি ১৫৩ টাকা হয়। এবার আবার দর ১৫৩ টাকায় ফিরলো। দেশে গত এক দশকের মধ্যে ভোজ্য তেলের সর্বোচ্চ দাম ছিল ২০১২ সালে। ওই বছর বোতলজাত সয়াবিনের দাম লিটারপ্রতি ১৩৫ টাকায় বিক্রি হয়েছিল। তবে এভাবে ভোজ্য তেলের দাম বাড়ার জন্য আন্তর্জাতিক বাজারকে দায়ী করছেন ব্যবসায়ীরা।
এদিকে বাণিজ্য সচিব তপন কান্তি ঘোষ জানান, চিনির দাম কিছুটা কমতে পারে। তবে সে ব্যাপারে মঙ্গলবার সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। সরকারি হিসেবে খোলা চিনির দাম কেজিপ্রতি ৭২ টাকা, প্যাকেটজাত চিনির দাম ৭৪ টাকা হওয়ার কথা।

ডায়ালসিলেট এম/

0Shares