আফগানিস্তানকে ৩ কোটি ডলার সহায়তা দেবে চীন

প্রকাশিত: ১১:০৭ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৯, ২০২১

আফগানিস্তানকে ৩ কোটি ডলার সহায়তা দেবে চীন

ডায়ালসিলেট ডেস্ক :: আফগানিস্তানকে ২শ মিলিয়ন ইউয়ান (৩ কোটি ১০ লাখ ডলার) সহায়তা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে চীন। এই অর্থে খাদ্য সরবরাহ এবং করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিনসহ অন্যান্য জরুরি সহায়তা দেওয়া হবে। তালেবানের তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপনে প্রস্তুত রয়েছে বলে জানানোর পর এই জরুরি সহায়তার ঘোষণা দিল বেইজিং।

আফগানিস্তানে নতুন তত্ত্বাবধায়ক সরকারকে স্বাগত জানিয়েছে বেইজিং। অন্যান্য দেশ এক্ষেত্রে ধীরে চলো নীতি অনুসরণ করলেও বেইজিং বলছে, কাবুলে নতুন অন্তর্বর্তী সরকার গঠনের মাধ্যমে তিন সপ্তাহের বেশি সময় ধরে যে অরাজক পরিস্থিতির অবসান ঘটেছে তারা একে স্বাগত জানাচ্ছে। একই সঙ্গে আফগানিস্তানে শান্তি ও শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে তালেবানের প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে।

বেইজিংয়ের পক্ষ থেকে আরও বলা হয়েছে, নতুন অন্তর্বর্তীকালীন সরকার প্রতিষ্ঠা আফগানিস্তানে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনার প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ ছিল। মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র এখনই তালেবান সরকারকে স্বীকৃতি দেবে না। কিন্তু এক্ষেত্রে চীন অনেক দ্রুত পদক্ষেপ নিয়েছে।

বুধবার প্রতিবেশী পাকিস্তান, ইরান, তাজিকিস্তান এবং তুর্কমেনিস্তানের সঙ্গে একটি বৈঠকে আফগানিস্তানের জন্য সহায়তা ঘোষণা করেন চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই। আফগানিস্তানের প্রতিবেশী দেশগুলোর পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের মধ্যে একটি জরুরি ভার্চুয়াল বৈঠকের আয়োজন করে পাকিস্তান।

পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিজ্ঞপ্তি জানায়, আফগানিস্তানে টেকসই শান্তি ও স্থিতিশীলতা প্রতিষ্ঠিত হলে তার ইতিবাচক প্রভাব প্রতিবেশী দেশগুলোতে পড়বে। কাজেই দেশটিতে শান্তি ও স্থিতিশীলতা প্রতিষ্ঠায় সহযোগিতা করা প্রতিবেশী দেশগুলোর দায়িত্ব এবং সে দায়িত্ব পালনের উপায় নিয়ে আলোচনা করাই এই ভার্চুয়াল বৈঠকের প্রধান উদ্দেশ্য।

ওই বৈঠকে অন্যান্য প্রতিবেশী দেশগুলোকেও আফগানিস্তানের প্রতি সহযোগিতার হাত বাড়ানোর আহ্বান জানিয়েছে চীন। বেইজিং জানিয়েছে, তারা আফগানিস্তানে ৩০ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন সরবরাহ করবে।

যুক্তরাষ্ট্রের সেনা প্রত্যাহারের নিন্দা জানিয়ে চীন বলছে, তারা অপরিকল্পিত এবং তাড়াহুড়ায় সব করেছে। বুধবার চীনের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, নতুন সরকার দেশে স্থিতিশীলতা ফিরিয়ে আনবে বলে আশা করেন তারা। এদিকে চীনকে আফগানিস্তানে গুরুত্বপূর্ণ অংশীদার বলে উল্লেখ করেছেন তালেবান নেতারা।

ডায়ালসিলেট/এম/এ/

0Shares