শ্রীমঙ্গলে শান্তি ও স্থিতিশীলতার জন্য সর্বদলীয় সভা

প্রকাশিত: ৮:১১ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১, ২০২৩

শ্রীমঙ্গলে শান্তি ও স্থিতিশীলতার জন্য সর্বদলীয় সভা

ডায়াল সিলেট ডেস্ক: সর্বত্র সহিংসতার বিরুদ্ধে মানুষ’ শিরোনামে শ্রীমঙ্গলে শান্তি ও স্থিতিশীলতার জন্য বহু দল ও মতের মানুষের সাথে পরামর্শ সভার আয়োজন করে হাঙ্গার প্রজেক্ট বাংলাদেশ। মঙ্গলবার দুপুরে শহরের শ্রীমঙ্গল ইন হোটেলে এ পরামর্শ সভায় উপজেলা দুপ্রক সভাপতি ও সনাক সদস্য সাংবাদিক সৈয়দ নেছার আহমেদ এর সভাপতিত্বে ও হাঙ্গার প্রজেক্টের উপজেলা কোঅর্ডিনেটর সাংবাদিক সৈয়দ ছায়েদ আহমেদের সঞ্চালনায় এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাবেক চিফ হুইপ বীর মুক্তিযোদ্ধা উপাধ্যক্ষ ড. আব্দুস শহীদ এমপি। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দি হাঙ্গার প্রজেক্ট বাংলাদেশের পরিচালক বদিউল আলম মজুমদার।এছাড়া সভায় বক্তব্য রাখেন বিট্রিশ হাইকমিশন ঢাকার সিনিয়র গর্ভনেন্স এডভাইজার ম্যাথু কার্টার, পলিটিক্যাল কাউন্সিলর টিম ডাকেট, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি অর্ধেন্দু কুমার দেব ভেবুল সাধারণ সম্পাদক বিশ্বজ্যোতি ধর শুভ্র, সাংগঠনিক সম্পাদক বেলায়েত হোসেন, শ্রীমঙ্গল প্রেসক্লাবের সভাপতি বিশ^জ্যোতি চৌধুরী বুলেট, বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ইয়াকুব আলী, সহ-সভাপতি শামিম আহমেদ, উপজেলা মহিলা দলের সভাপতি জেলা পরিষদ সদস্য হেলেনা চৌধুরী, জাসদ সভাপতি এলেমান কবির, জাতীয় পার্টির উপজেলা সভাপতি হাজী মাস্তান মিয়া, অধ্যাপক সুদর্শন শীল, প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি জহর তরপদার, সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাজী মো. দুদু মিয়া,মির্জাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মিছলু আহমেদ সহ বিভিন্ন ধর্মীয় ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। প্রধান অতিথি আব্দুস শহীদ এমপি তার বক্তব্যে বলেন, শ্রীমঙ্গলে সব দল ও মতের মানুষের সহাবস্থান দীর্ঘ দিনের। এখানে রাজনৈতিক কোন হানাহানি নেই। সবার সমান সুযোগ রয়েছে রাজনৈতিক চর্চা করার। এদিকে দেশে বিএনবির তারুণ্য সমাবেশ ও মহাসমাবেশ এবং আওয়ামীলীগের শান্তি সমাবেশকে ঘিরে যখন রাজধানীসহ বিভিন্ন জেলা-উপজেলায় চলছে সংঘর্ষ, সহিংসতা, বাসে আগুন দেওয়া হয়েছে।তখন শ্রীমঙ্গলে একই সভায় মিলিত হলেন আওয়ামীলীগ, বিএনপি ও জাতীয় পার্টিসহ অন্যান্য দলের নেতারা। এক সভায় বসে তারা অঙ্গীকার করেন দেশের রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় যে দলই আসুক না কেন অতীতের মত শ্রীমঙ্গলে শান্তি ও সম্প্রীতি বজায় থাকবে। বক্তরা বলেন, সহিংসতার পথে না গিয়ে সামনে মেনে চলবেন নির্বাচনী আচরণ বিধি। সভায় বিট্রিশ হাইকমিশন ঢাকার পলিটিক্যাল কাউন্সিলর টিম ডাকেট বলেন, ঢাকায় যখন রাজনৈতিক দলের মধ্যে সহিংসতা হচ্ছে, শ্রীমঙ্গলে সব দলের এই সহাবস্থান দেখে তিনি খুবই খুশি হয়েছেন। তিনি আরও বলেন, গণতন্ত্রে পরম সহিষ্ণুতা মেনে চলতে হবে এবং সহিংসতাকে পরিহার করতে হবে। বিএনপির সাবেক উপজেলার সাধারণ সম্পাদক ইয়াকুব আলী বলেন, শ্রীমঙ্গলে রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে এমন সম্প্রীতির সম্পর্ক বজায় রয়েছে বর্তমান আওয়ামীলীগের এমপি উপাধ্যক্ষ ড. আব্দুস শহীদ এমপি ও পৌর সভার মেয়র মহসিন মিয়া মধু এর কারনে। চাঁদাবাজিসহ সকল সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে তাদের ঐক্যমত থাকার কারনে এমন পরিবেশ হয়েছে বলে তিনি জানান। জাতীয় পার্টির উপজেলা সভাপতি হাজী মাস্তান মিয়া আক্ষেপের সুরে বলেন, জাতীয় পার্টি বিগত ১৫ বছর হতে আওয়ামীলীগের সাথে রয়েছে। কিন্তু তাদের থেকে শ্রীমঙ্গলে কোন মূল্যায়ন পাইনি। এভাবে যদি জাতীয় পার্টি চলে তাহলে সামনের দিনে জাতীয় পার্টি অস্তিত্ব সংকটে পরতে পারে বলে তিনি মতামত ব্যক্ত করেন।

0Shares

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ